অভিনয়ে ব্যস্ত হচ্ছেন দর্শকপ্রিয় অভিনেতা ও নির্মাতা সোহেল রহমান

প্রকাশিতঃ ৬:৫০ অপরাহ্ণ, রবি, ১১ অক্টোবর ২০

বিনোদন প্রতিবেদক : দর্শকপ্রিয় অভিনেতা ও নির্মাতা সোহেল রহমানের অভিনয়ের শুরুটা মঞ্চ দিয়ে। ১৯৯০ সালে নরসিংদীর মঞ্চে তার অভিনয়ে হাতেখড়ি। স্থানীয় শিল্পকলা একাডেমীর প্রশিক্ষক হারুন অর রশীদের হাতেই একক অভিনয়ের প্রশিক্ষণ শুরু। তারপর জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ, জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতাসহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে নরসিংদীর হয়ে অনেক সুনাম কুড়িয়েছেন।

১৯৯৪ সালে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ একক অভিনয়ে সারা বাংলাদেশে ১ম স্থান অর্জন করেন। তারপর ১৯৯৬ থেকে অভিনয় নাট্য সংসদের হয়ে একাধিক মঞ্চ নাটকে অংশ নেন। তৎকালীন সময়ে প্রথিতযশা অভিনেতা আরিফুল হকের সান্নিধ্য লাভ করেন। পরবর্তীতে ড. ইনামুল হক ও লাকী ইনামের কাছ থেকে টিভি নাটকে অভিনয়ের প্রশিক্ষণ নেন।

২০০২ সালে প্রাচ্যনাট্য থেকে অভিনয়ের উপর ৬ মাসব্যাপী কোর্স সম্পন্ন করেন। ২০০৩ সালে বাংলাদেশ টেলিভিশনে অনুষ্ঠান প্রযোজক মোহাম্মদ ফারুক ভূইয়ার শিশুতোষ নাটক দিয়ে টিভি নাটকে অভিনয় শুরু করেন। ২০০১ থেকে ২০০৪ তিতুমীর কলেজ সংস্কৃতিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ও ২০০৫ থেকে ২০০৬ সভাপতির দ্বায়িত্ব পালন করেন। ঐ সময় অভিনয় প্রশিক্ষণে প্রধান প্রশিক্ষক ছিলেন বিশিষ্ঠ নাট্যজন ও বর্তমানে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। ফলে এই নাট্যব্যক্তিত্বের সান্নিধ্য পেয়ে সোহেল রহমান নাটকের প্রতি আরো বেশী আগ্রহী হয়ে উঠেন।

পাশাপাশি বিটিভিতে সহ প্রযোজক হিসেবে কাজ শুরু করেন। পরবর্তীতে তিনি টেলিভিশন প্রযোজক হিসেবে কয়েকটি স্যাটেলাইট চ্যানেলে নির্মাতা হিসেবে কাজ করেন। এসময় তিনি বেশকিছু জনপ্রিয় অনুষ্ঠান নির্মাণ করেন। তাছাড়া একক নাটক নির্মাণ করেন প্রায় ১০টি। পাশাপাশি চলে অভিনয়।

তার অভিনীত একক নাটক নাইট গার্ড, বৈশাখী মেলা, কাগজের ফুল, ভালো মানুষ হতে চাই, সুখের খনি, শেকল ভাঙার দিনে, আমি আর ভালোবাসবো না, আন্দুর শুভ বিবাহ, স্পেশাল গেস্ট ইত্যাদি। এছাড়া তার অভিনীত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ভাইজান একটি আন্তজার্তিক উৎসবে জুড়ি বোর্ডের মনোনয়ন পেয়েছে। বেশকিছু বিজ্ঞাপনেও তিনি অনবদ্য অভিনয় করেন।

সোহেল রহমান অভিনীত ধারাবাহিকগুলো হলো- সাজ্জাদ সুমন পরিচালিত সবুজ কানন বয়েজ হোস্টেল, রহমতুল্লাহ তুহিন পরিচালিত টক অব দ্যা টাউন, আবু হায়াত মাহমুদ পরিচালিত বৃষ্টিদের বাড়ি, সাজিন আহমেদ বাবু পরিচালিত কর্পোরেট ভবালোবাসা, সাজ্জাদ হোসেন দুদুল পরিচালিত ছায়াবীথি উল্লেখযোগ্য। সর্বশেষ তিনি জনপ্রিয় নির্মাতা আবু হায়াত মাহমুদের ওয়েব সিরিজ “ভালো বাসা” তে অভিনয় করেছেন। মূলত কমেডি ধারার অভিনয়ে বেশি পারদর্শী সোহেল রহমান। সামনে তরুণ নির্মাতা ইমরাউল রাফাতের নাটকে অভিনয়ের কথা রয়েছে তার। পাশাপাশি নির্মাণেও হাত দিবেন বলে জানিয়েছেন এই নির্মাতা।

সোহেল রহমান বলেন, সামনে ভালো কিছু কাজ করে দর্শকের মনে জায়গা করে নিতে চাই। অভিনয়টাকে ধরে রাখতে চাই, নিজের মধ্যে লালন করতে চাই, ধারণ করতে চাই। বর্তমানে তিনি এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের পাবলিক রিলেশন্স ডিভিশনের হেড হিসেবে কর্মরত আছেন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।