উহান ফেরত সকল বাংলাদেশি সুস্থ আছেন : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ ৫:৫৬ অপরাহ্ণ, রবি, ২ ফেব্রুয়ারি ২০

আশকোনা হজ ক্যাম্পে কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থায় থাকা চীনের উহান থেকে আসা সকল বাংলাদেশি সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। আজ রোববার (২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন মন্ত্রী। এখনো দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত কোনো রোগী শনাক্ত হয়নি বলেও জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, হজ ক্যাম্পে বাংলাদেশিদের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় রাখা হয়েছে, তারা ভালো আছেন। তবে নিয়মমতো পর্যবেক্ষণে থাকবেন তারা। নিজের ইচ্ছামতো সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে থাকা একজন গর্ভবতীও ভাল আছেন।

তাদের মধ্যে কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কিনা তা ১৪ দিনের মধ্যে জানা যাবে উল্লেখ করে জাহিদ মালেক বলেন, যারা এসেছেন তাদের কাউকে জোর করে আনা হয়নি। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আনা হয়েছে। তবে এখনই আত্মীয় স্বজনরা তাদের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না।

চীনা নাগরিকদের জন্য চীন-বাংলাদেশ যাতায়াতে কিছুটা কড়াকড়ির বিষয়ে সরকারের উদ্যোগকে ইতিবাচক হিসেবে উল্লেখ করে মন্ত্রী।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ৯ জানুয়ারি চীনের উহানে প্রথম এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। আজ শনিবার (২ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৩০৫ জন মারা গেছেন। এছাড়া আক্রান্তের সংখ্যাও বেড়ে ১৪ হাজার ৬২৮ জনে পৌঁছেছে বলে জানিয়েছে চীনের স্বাস্থ্য কমিশন।

এরই মধ্যে ভাইরাসটি চীন ছাড়াও এ পর্যন্ত ২৪টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে।

থাইল্যান্ড, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, ভিয়েতনাম, হংকং, সিঙ্গাপুর, ভারত, মালয়েশিয়া, নেপাল, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, জার্মানি, কম্বোডিয়া, শ্রীলঙ্কা, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং তাইওয়ানে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

এছাড়া ইসরায়েলেও এক রোগীর শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এই প্রেক্ষাপটে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা গত ৩০ জানুয়ারি (বাংলাদেশে ৩১ জানুয়ারি) বৈশ্বিক জনস্বাস্থ্য বিষয়ে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ