এবারের ভোট যুক্তরাষ্ট্রবাসীর জীবনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ : ওবামা

প্রকাশিতঃ ৮:৩৪ পূর্বাহ্ণ, বৃহঃ, ২২ অক্টোবর ২০

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে ঘিরে জো বাইডেনের পক্ষে মাঠে নেমেছেন সাবেক ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। দেশটির যেসব অঙ্গরাজ্যে ডোনাল্ড ট্রাম্প ও বাইডেনের মধ্যে তীব্র লড়াইয়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে, সেগুলোর একটি পেনসিলভানিয়া। সেখানেই স্থানীয় সময় বুধবার ওবামার সফর করেন।

সেখানে ওবামা বলেন, আমাদের জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচনটি আর মাত্র ১৩ দিন পর অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আমরা পরবর্তী ১৩ দিনে যা করব তা কয়েক দশক ধরে গুরুত্বপূর্ণ হবে।

পেনসিলভানিয়াকে গুরুত্ব দিচ্ছে রিপাবলিকান শিবিরও। তাই মঙ্গলবার ওই অঙ্গরাজ্যের আরেক শহরে সমাবেশ করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। ২০১৬ সালের নির্বাচনে এ অঙ্গরাজ্যে অল্প ব্যবধানে তিনি জিতেছিলেন এবং এবারও এখানকার শ্বেতাঙ্গ শ্রমজীবী শ্রেণির ভোট মুঠোবন্দি করার আশা তাঁর রয়েছে।

নির্বাচনের বাকি দুই সপ্তাহেরও কম। শেষ দিনগুলোকে সর্বোচ্চ কাজে লাগানোর জন্য গোটা দেশ চষে বেড়াচ্ছেন রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। দিনে দুই-তিনটি করে সমাবেশে অংশ নিচ্ছেন তিনি। স্বাস্থ্যবিধিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে তাতে গাদাগাদি করে অংশ নিচ্ছে সমর্থকরা।

এ চিত্রের বিপরীতে সপ্তাহে একটি বা দুটি সমাবেশের মধ্যে নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখছেন বাইডেন। সেসব সমাবেশে স্বাস্থ্যবিধির কড়াকড়িতে সমর্থকদের উপস্থিতি নগণ্য। মূলত সাক্ষাৎকার, বিবৃতি, টেলিভিশন বক্তব্য আর অনলাইন সম্প্রচারে সীমাবদ্ধ তাঁর প্রচার কার্যক্রম। এমন জনবিচ্ছিন্ন প্রচার কৌশলের জন্য চলছে তাঁর সমালোচনা, যদিও সব জরিপে তিনি ট্রাম্পের চেয়ে অনেক এগিয়ে।

দুই প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর বিপরীতধর্মী প্রচার কার্যক্রম আর তা নিয়ে আলোচনার মধ্যে বাইডেনের পক্ষে প্রচারে নামছেন ওবামা। ট্রাম্পের ভাষায় ‘ঘরে লুকিয়ে থাকা’ বাইডেনের পক্ষে সপ্রতিভ ওবামার প্রচার ভোটারদের মনে নতুন ছাপ ফেলবে কি না, তা স্পষ্ট নয়। আর প্রেসিডেনশিয়াল বিতর্ক ভোটারদের সিদ্ধান্তে পরিবর্তন আনে, মার্কিন নির্বাচনের ইতিহাসে তেমন রেকর্ডও খুব একটা নেই। যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় আজ বৃহস্পতিবার রাতে ট্রাম্প-বাইডেন শেষ বিতর্কে অংশ নিচ্ছেন। সূত্র : এএফপি ও এনপিআর।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।