ঐক্যের ডাক দিলেন জো বাইডেন

প্রকাশিতঃ ৯:২৫ পূর্বাহ্ণ, রবি, ৮ নভেম্বর ২০

নির্বাচনে জয়ের পর জাতির উদ্দেশে দেয়া প্রথম ভাষণে আমেরিকার জনগণকে ধন্যবাদ দিয়েছেন নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। সেইসঙ্গে, আমারেকাবাসীকে ঐক্যের ডাক দিয়েছেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের ডেলাওয়ার অঙ্গরাজ্যের উইলমিংটনে বিজয়ী ভাষণে তিনি এ মন্তব্য করেন।

জাতির উদ্দেশে ভাষণে তিনি আমেরিকার জনগণকে ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, ‘আমেরিকার মানুষ জবাব দিয়েছে। তারা আমাদের পরিষ্কার বিজয় এনে দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি (৭ কোটি ৪০ লাখ) ভোট পেয়ে আমরা জয়ী হয়েছি।’

যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেওয়া প্রথম ভাষণে ঐক্যের ডাক দিয়ে জো বাইডেন বলেন, ‘আমি সবার সঙ্গে কোয়ালিশনের জন্য গর্ববোধ করছি। বৈচিত্রপূর্ণভাবে কোয়ালিশন করে আমরা একসঙ্গে ইতিহাস সৃষ্টি করেছি। এখানে আমি বুঝাতে বলতে চাচ্ছি, ডেমোক্র্যাটস, রিপাবলিকান, স্বতন্ত্র, প্রগতিশীল, মধ্যপন্থী, রক্ষণশীল, তরুণ, প্রবীণ, শহুরে, শহরতলির, গ্রামীণ, সমকামী, সরাসরি, হিজড়া, সাদা, ল্যাটিনো, এশীয়, স্থানীয় আমেরিকানদের।’

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। ঝুলে থাকা রাজ্য পেনসিলভানিয়ায় জয় পেয়ে হোয়াইট হাউসের দুয়ার খুলে যায় তার। এ রাজ্যের ২০টি ভোট যোগ হলে তার ইলেকটোরাল কলেজ ভোট দাঁড়ায় ২৮৪টিতে।

জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ২৭০টি। পরে নেভাদাতেও জয় পান বাইডেন, ইলেকটোরাল ভোট গিয়ে ঠেকে ২৯০টিতে। তখনও (বাংলাদেশ সময় শনিবার রাত ১১টা, ওয়াশিংটন সময় সকাল ১০টা) তিন রাজ্যে ভোট গণনা চলছিল।

সে সময় পর্যন্ত বাইডেনের প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান দলের প্রার্থী বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ইলেকটোরাল ভোট ২১৪টি।

এই জয়ে সবচেয়ে বেশি বয়সে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার ইতিহাস গড়লেন বাইডেন। এর আগেই যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ইতিহাসে সর্বোচ্চ পপুলার ভোট পাওয়ার ইতিহাসও সৃষ্টি করেন ৭৭ বছর বয়সী এই ডেমোক্র্যাট।

তিনি পপুলার ভোট পেয়েছেন (ফল ঘোষণা না হওয়া তিন রাজ্যের হিসাব অন্তর্ভুক্ত নয়) সাত কোটি ৪৮ লাখ ৭২ হাজার ৫৭০টি। সে পর্যন্ত ট্রাম্প পেয়েছেন সাত কোটি ছয় লাখ এক হাজার ৯৬৮ ভোট।

বাইডেনের জয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত কমলা হ্যারিস। এর মধ্য দিয়ে দেশটির ইতিহাসে প্রথম কোনো নারী ও প্রথম কোনো কৃষ্ণাঙ্গ এ আসনে বসলেন।

ফল ঘোষণা নিয়ে চার দিন ধরে রুদ্ধশ্বাস সময় কাটছিল মার্কিনিদের। বিশ্বও তাকিয়ে ছিল এর দিকে। ট্রাম্পের নানা অভিযোগ ও তার দল রিপাবলিকানদের নানা কার্যকলাপে বাড়ছিল উত্তেজনাও।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।