কচুয়ায় হাফেজ এনামুলকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

প্রকাশিতঃ ৮:১৮ অপরাহ্ণ, শুক্র, ২৯ মে ২০

চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধি : জেলার কচুয়া উপজেলার ৩নং বিতারা ইউনিয়নের বাইছারা গ্রামের হাফেজ এনামুলক হককে (২২) পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে এনামুল হক বাইছারা বাজার থেকে বাড়ি ফেরার সময় বাড়ির সামনে ব্রীজের কাছে এ হামলার শিকার হয়। বিকালে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন।

নিহত এনামুল হক বাইছারা গ্রামের হাজী মুজিবুর রহমানের ছেলে।

নিহতের চাচাতো ভাই মাওলনা নোমান শিকারী জানান, ওৎ পেতে থাকা একই এলাকার হোসেন শিকারী, আলম মিয়া, শরীফ, রাসেল, দুলালসহ ১৫/২০ জন ব্যক্তি হাফেজ এনামুল হকের উপর দেশীয় অস্ত্র দিয়ে অতর্কিত হামলা করে মাথা ও শরীরে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে।

পরে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখান থেকে কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায় এনামুল।

নিহতের চাচী ঝর্ণা বেগম জানান, হামলাকারীদের সাথে তাদের জমিজমা নিয়ে পূর্ব বিরোধ ও মামলা মোকদ্দমা চলছে। ৬ মাস পূর্বে হাফেজ এনামুল হক বিয়ের পিঁড়িতে বসেন। তার স্ত্রী ৪ মাসের অন্তঃসত্তা।

নিহতের স্ত্রী তার স্বামীর হত্যার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। ঘটনার পর হামলারকারীরা এলাকা ছেড়ে গাঁ ঢাকা দিয়েছে।

কচুয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওয়ালী উল্যাহ অলি জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে প্রতিপক্ষরা নিহতের উপর হামলা করে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।