করোনাভাইরাস মানুষের তৈরি নয় : মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগ

প্রকাশিতঃ ৯:৫১ পূর্বাহ্ণ, শনি, ২ মে ২০

মার্কিন প্রেসিডেন্টের দাবি, উহানের ভাইরোলজি ল্যাবরেটরি থেকেই লিক হয়ে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস। চীনের কাছ থেকে এ জন্য বড় অংকের ক্ষতিপুরণ আদায় করে ছাড়বেন বলেও হুমকি দিয়েছেন তিনি। তবে এবার সেই জল্পনায় জল ঢেলে দিয়েছে খোদ মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগ। বৃহস্পতিবার তারা জানিয়ে দিল, মানুষের তৈরি নয় এই ভাইরাস।

এক বিবৃতিতে আমেরিকার ডিরেক্টর অব ন্যাশনাল ইন্টেলিজেন্স জানিয়েছে, দেশের পুরো গোয়েন্দা বিভাগ পরিস্থিতির উপর নজর রেখেছে। বিজ্ঞানসম্মত ভাবে ভাইরাসটি নিয়ে তথ্য সংগ্রহ করার পর জানা গেছে কভিড-১৯ মানুষের তৈরি নয় বা জিনগত ভাবে কোনো পরিবর্তন ঘটানো হয়নি।’

চীনের উহানে উৎপত্তির পর গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়া এই মারণ ভাইরাস নিয়ে শুরুতেই চীনের বিরুদ্ধে আভিযোগের আঙুল তুলেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর জন্য চীনকে বিপুল অংকের ক্ষতিপূরণও দিতে হবে বলে হুমকি দিয়েছেন তিনি। ট্রাম্পের সেই বক্তব্যের কয়েক ঘণ্টা পরই মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগ এমন তথ্য তুলে ধরেছে। সোমবার ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘বেইজিং ভাইরাসটি নিয়ে তথ্য গোপন করেছে। যার জেরে গোটা বিশ্বে ৩২ লাখ মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ২ লক্ষ ২৭ হাজার মানুষের। এবং এর জন্য সম্পূর্ণ দায়ী চীন।’

করোনার সংক্রমণ ছড়ানোর পর পরই জল্পনা ছড়ায় ভাইরাসটি মানুষের তৈরি। গত ৮ এপ্রিল প্রকাশিত পিউ রিসার্চ সেন্টারের এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, ২৯ শতাংশ মার্কিন নাগরিক বিশ্বাস করেন ভাইরাসটি ল্যাবরেটরিতে তৈরি করা হয়েছে। কিন্তু সেই দাবির পক্ষে জোরালো কোনো প্রমাণ এখনো পর্যন্ত মেলেনি।

তার পরই বৃহস্পতিবার আমেরিকার ‘অফিস অব দ্য ডিরেক্টর অব ন্যাশনাল ইন্টেলিজেন্স’ জানায়, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো এতদিন ধরে তদন্ত করে এই সিদ্ধান্তে এসেছে যে, করোনাভাইরাস মানুষের তৈরি নয় বা জিনগত ভাবে এর কোনো পরিবর্তন ঘটানো হয়নি। যদিও ভবিষ্যতেও গোয়েন্দারা এই ভাইরাসের উৎস নিয়ে তদন্ত করে যাবেন বলে জানানো হয়েছে।

সূত্র- ফরেন পলিসি।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ