করোনার কারণে এবারের হজে কাবাঘর স্পর্শ নিষিদ্ধ

প্রকাশিতঃ ১১:৩৫ পূর্বাহ্ণ, মঙ্গল, ৭ জুলাই ২০

বৈশ্বিক মহামারি নভেল করোনাভাইরাসে সৌদি আরবসহ পুরো বিশ্ব আজ বিপর্যস্ত। স্বাস্থ্য, অর্থনৈতিক ও সামাজিক জীবনের পাশাপাশি ধর্মীয় জীবনেও প্রভাব ফেলেছে এ প্রাণঘাতী ভাইরাস। এ বছর মুসলিম উম্মাহর সবচেয়ে বড় ধর্মীয় সম্মিলন হজ এরই মধ্যে সীমিত পরিসরে আয়োজনের ঘোষণা করেছে সৌদি সরকার। তবে সীমিত পরিসরে হজ হলেও এ বছর হজে পবিত্র কাবাঘর ছোঁয়া বা হাজরে আসওয়াদে চুমু খাওয়া সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সোমবার সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) এসব তথ্য নিশ্চিত করে।

জানা যায়, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে এবারের হজে বেশ কিছু স্বাস্থ্যবিধি ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। এর মধ্যে রয়েছে— যদি কাউকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহ করা হয়, তবে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শেই তাঁকে হজ পালন করতে দেওয়া হবে। তার আগে ওই ব্যক্তিকে আলাদা বাড়িতে রাখা হবে এবং যাতায়াতও আলাদা করার ব্যবস্থা করা হবে।

কাবা শরিফে কর্মরত শ্রমিক ও হজ পালনকারীদের মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে সচেতন করা হবে।

নামাজ আদায়ের সময় মুসল্লিদের মুখে মাস্ক থাকতে হবে এবং একজন থেকে আরেকজনের মধ্যে দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। খাদ্য গ্রহণ, পানি পান ও যানবাহন ব্যবহারেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এ ছাড়া মক্কার গ্র্যান্ড মসজিদের পবিত্র কাবা ছোঁয়া এবং পবিত্র কালো পাথর হাজরে আসওয়াদে চুমু দেওয়া নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কাবা প্রদক্ষিণকালে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার ওপর জোর দেওয়া হয়েছে।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ৩০ জুলাই পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।