করোনা উপসর্গে শ্রমিকের মৃত্যু, লাশ রেখে পালালো সঙ্গীরা

প্রকাশিতঃ ১০:৪৭ অপরাহ্ণ, শনি, ২৫ এপ্রিল ২০

মো. আবদুল্যাহ চৌধুরী, নোয়াখালী : জেলার সেনবাগ উপজেলার ডুমুরুয়া ইউনিয়নে করোনা উপসর্গ (জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টে) নিয়ে অজ্ঞাত (৩২) এক মাটি কাটা শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (২৫এপ্রিল) রাতের যে কোনো সময় ওই ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের ভূঁইয়া বাড়ি সংলগ্ন একটি পরিত্যক্ত ঘরে তার মৃত্যু হয়। এ সময় তার সাথে থাকা সঙ্গীরা মরদেহ ফেলে পালিয়ে যায়।

শনিবার (২৫এপ্রিল) সকালে নমুনা সংগ্রহ শেষে বিকালে বিশেষ ব্যবস্থায় মরদেহের দাফন সম্পন্ন করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

নিহত ব্যক্তির গ্রামের বাড়ি জেলার হাতিয়া উপজেলায়। তিনিসহ ১০-১২জন শ্রমিক গত কিছুদিন পর্যন্ত ডুমুরুয়ার ভূইয়া বাড়ির মাটি কাটার কাজ করছিলেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. মতিউর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, মারা যাওয়া ওই ব্যক্তিসহ ১০-১২জন শ্রমিক মাটিকাটার কাজ করতেন। তারা সবাই এক সঙ্গে ভূইয়া বাড়ির পাশের একটি পরিত্যক্ত বাড়ির একটি ঘরে থাকতেন। গত দুইদিন ধরে জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন তিনি। শুক্রবার রাতের কোনো এক সময় তিনি মারা যান। তার মৃত্যুর পরপরই তার সঙ্গে থাকা সঙ্গীরা পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে শনিবার সকালে মৃত ব্যক্তির করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে চট্টগ্রামের বিআইটিআইডিতে পাঠানো হয়েছে। পরে বিকালে উপজেলা মরদেহ সৎকার কমিটির সদস্যদের মাধ্যমে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় দাফন করা হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার ফলাফল জানার পর এ বিষয়ে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ