করোনা থেকে সুস্থ দুই কোটি ১৫ লাখের বেশি মানুষ

প্রকাশিতঃ ৮:৫০ পূর্বাহ্ণ, বুধ, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০

বৈশ্বিক মহামারি নভেল করোনাভাইরাসে সারা বিশ্বে বুধবার সকাল পর্যন্ত আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে দুই কোটি ৯৭ লাখের বেশি মানুষ। তাদের মধ্যে বর্তমানে ৭২ লাখ ৪৭ হাজার ৯০৬ চিকিৎসাধীন এবং ৬০ হাজার ৯১২ জন (১ শতাংশ) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছে অনেক মানুষ। এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে দুই কোটি ১৫ লাখ ৩০ হাজার ৬৬০ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসজনিত কোভিড-১৯ রোগ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে সেরে উঠেছে ৪০ লাখ ৬৮ হাজার ৮৬ জন, ভারতে ৩৯ লাখ ৩৯ হাজার ১১১, ব্রাজিলে ৩৬ লাখ ৭১ হাজার ১২৮, রাশিয়ায় আট লাখ ৮৪ হাজার ৩০৫, দক্ষিণ আফ্রিকায় পাঁচ লাখ ৮৩ হাজার ১২৬, পেরুতে পাঁচ লাখ ৮০ হাজার ৭৫৩, কলোম্বিয়ায় ছয় লাখ সাত হাজার ৯৭৮, মেক্সিকোতে চার লাখ ৭৫ হাজার ৭৯৫, চিলিতে চার লাখ ৯ হাজার ৯৪৪, ইরানে তিন লাখ ৪৯ হাজার ৯৮৪, সৌদি আরবে তিন লাখ পাঁচ হাজার ২২, পাকিস্তানে দুই লাখ ৯০ হাজার ২৬১, তুরস্কে দুই লাখ ৬১ হাজার ৬০, জার্মানিতে দুই লাখ ৩৯ হাজার ১০০, বাংলাদেশে দুই লাখ ৪৫ হাজার ৫৯৪, ইতালিতে দুই লাখ ১৪ হাজার ৬৪৫, কাতারে এক লাখ ১৯ হাজার ১৪৪, কানাডায় এক লাখ ২১ হাজার ৮৪০, ফ্রান্সে ৮৯ হাজার ৮৯১ জন, ওমানে ৮৪ হাজার ১১৩ এবং চীনের মূল ভূখণ্ডে ৮০ হাজার ৪৩৭ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

এ ছাড়া কুয়েতে ৮৬ হাজার ২১৯ জন, সংযুক্ত আরব আমিরাতে ৭০ হাজার ৬৩৫, সিঙ্গাপুরে ৫৬ হাজার ৮৮৪, সুইজারল্যান্ডে ৩৯ হাজার ৯০০, অস্ট্রেলিয়ায় ২৩ হাজার ৬৫২, দক্ষিণ কোরিয়ায় ১৯ হাজার ৩১০ ও মালয়েশিয়ায় ৯ হাজার ২০৯ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম দেখা দেওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ, অঞ্চল এবং দুটি আন্তর্জাতিক প্রমোদতরীতে ছড়িয়েছে। করোনাভাইরাসে সারা বিশ্বে এখন পর্যন্ত ৯ লাখ ৩৮ হাজার ৪৪৭ জন রোগী মারা গেছে।

গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।