করোনা থেকে সুস্থ ৭১ লাখ ৮৭ হাজারের বেশি মানুষ

প্রকাশিতঃ ১০:১৩ পূর্বাহ্ণ, শুক্র, ১০ জুলাই ২০

বৈশ্বিক মহামারি নভেল করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে। এ ভাইরাসে সারা বিশ্বে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে এক কোটি ২৩ লাখ ৮৭ হাজারের বেশি মানুষ। তাদের মধ্যে বর্তমানে ৪৬ লাখ ৪২ হাজার ৬৩৬ জন চিকিৎসাধীন এবং ৫৮ হাজার ৪৫৪ জন (১ শতাংশ) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছে অনেক মানুষ। এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে ৭১ লাখ ৮৭ হাজার ৩৮৯ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসজনিত কোভিড-১৯ রোগ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে সেরে উঠেছে ১৪ লাখ ২৬ হাজার ৪২৮ জন, ব্রাজিলে ১১ লাখ ৫২ হাজার ৪৬৭, রাশিয়ায় চার লাখ ৮১ হাজার ৩১৬ জন, ভারতে চার লাখ ৯৫ হাজার ৯৬০, চিলিতে দুই লাখ ৭৪ হাজার ৯২২, ইরানে দুই লাখ ১২ হাজার ১৭৬, পেরুতে দুই লাখ সাত হাজার ৮০২, ইতালিতে এক লাখ ৯৩ হাজার ৯৭৮, তুরস্কে এক লাখ ৯০ হাজার ৩৯০, জার্মানিতে এক লাখ ৮৩ হাজার ৬০০, মেক্সিকোতে এক লাখ ৭২ হাজার ২৩০, সৌদি আরবে এক লাখ ৬১ হাজার ৯৬, পাকিস্তানে এক লাখ ৪৫ হাজার ৩১১, দক্ষিণ আফ্রিকায় এক লাখ ১৩ হাজার ৬১, কাতারে ৯৭ হাজার ২৭২, বাংলাদেশে ৮৪ হাজার ৫৪৪, চীনের মূল ভূখণ্ডে ৭৮ হাজার ৬০৯ এবং ফ্রান্সে ৭৮ হাজার ১৭০ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

এ ছাড়া কানাডায় ৭০ হাজার ৫৭৪ জন, কুয়েতে ৪২ হাজার ৬৮৬, সিঙ্গাপুরে ৪১ হাজার ৬৪৫, সংযুক্ত আরব আমিরাতে ৪৩ হাজার ৫৭০, সুইজারল্যান্ডে ২৯ হাজার ৪০০, দক্ষিণ কোরিয়ায় ১২ হাজার ৬৫, মালয়েশিয়ায় আট হাজার ৪৯৯ ও অস্ট্রেলিয়ায় সাত হাজার ৫৭৬ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম দেখা দেওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে এবং পাঁচ লাখ ৫৭ হাজার ৩৯৫ জন রোগী মারা গেছে।

গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।