করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় অধ্যাপক পারভেজের রূপরেখা

প্রকাশিতঃ ৩:৫১ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ২৮ এপ্রিল ২০

সময় জার্নাল প্রতিবেদক: মহামারী করোনা ভাইরাসের ব্যাপকহারে সংক্রমণ ঠেকাতে দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। ফলে ঘরে বসে অলস সময় কাটছে কর্মক্ষম মানুষের। এতে একদিকে অর্থসংকট অন্যদিকে খাদ্য সংকটের সম্মুখীন হচ্ছেন তারা।

দেশের এই ক্রান্তিকালে অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনা সঠিকভাবে পরিচালনা করার জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি রূপরেখা তুলে ধরেছেন ন্যাশনাল ব্যুরো অব ইকোনোমিকস রিসার্চ (এনবিইআর) এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক সৈয়দ আহসানুল আলম পারভেজ। সময় জার্নালের পাঠকদের জন্য অধ্যাপক পারভেজের দেয়া রূপরেখাটি তুলে ধরা হল –

♦ দেশে খাদ্য উৎপাদন হয় ৩৮১.৪১ লক্ষ মেট্রিক টন। ২ কোটি হতদরিদ্র মানুষের খাদ্যের গড় হিস্যা প্রায় ৪৮ লক্ষ মেট্রিক টন। ৩০ টাকা দরে এর মূল্য ১৪২৫০ কোটি টাকা হলে সারাবছর ডালভাত খাওয়ানো যায়। ৭৫০০ কোটি টাকা হলে ৬ (ছয়) মাস খাওয়ানো যায়। এটা জাতির পিতার কন্যার জন্য কোন অসাধ্য কাজ নয়।

♦ বিগত বছরগুলোতে খাদ্য উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হয়েছে। ধান, গম, ডাল, আলু, শাক সব্জি, মাছ ইত্যাদির জন্য কৃষি অর্থায়ন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মাত্র আড়াই হাজার কোটি টাকার ঋণ প্রবাহ বাড়িয়ে দিলে একদিকে জ্যামিতিক হারে উৎপাদন বেড়ে যাবে অন্যদিকে গ্রামীণ অর্থনীতি গতিশীল হয়ে দারিদ্র বিমোচন হবে।

♦ সমাজে কথা উঠেছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিম্ন ও মধ্যবিত্তকে কিভাবে সহায়তা দিবে? বর্তমানে প্রাইমারী শিক্ষার ১.৫ কোটি ছাত্রছাত্রীদের জন্য যে পদ্ধতিতে উপবৃত্তি চালু আছে একই ডেটাবেজ ব্যবহার করে প্রতি পরিবারকে প্রতি মাসে ২০০ টাকা উপবৃত্তির অতিরিক্ত ১০০০ টাকা করে ১৫০০ কোটি টাকা মোবাইল ক্যাশের মাধ্যমে সহায়তা প্রদান করলেই মধ্যবিত্ত পরিবার কিছুটা স্বস্তি পাবে। দুর্নীতি মুক্ত রেখে এই ব্যবস্থাকে অতিসত্ত্বর বাস্তবায়ন করা যাবে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ