করোনা : ব্যাংক লেনদেনের সময় কমল

প্রকাশিতঃ ৫:৩০ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ৯ এপ্রিল ২০

নিউজ ডেস্ক : একজন ব্যাংকার নভেলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর দেশের সব ব্যাংকে লেনদেনের সময় আবারও কমিয়ে আনা হয়েছে।

সীমিত আকারের ব্যাংকিং সেবার আওতায় যেসব ব্যাংক শাখা খোলা রয়েছে, সেগুলোতে আগামী ১২ এপ্রিল রোববার থেকে লেনদেন চলবে সকাল ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত।

আর আনুষঙ্গিক কার্যক্রম সম্পাদনের জন্য ব্যাংক খোলা থাকবে বেলা ২টা পর্যন্ত।

বৃহস্পতিবার এক সার্কুলারের মাধ্যমে ব্যাংক লেনদেনর নতুন এই সময়সূচি ঠিক করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম বলেন, “দেশে নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। রাষ্ট্রায়ত্ত অগ্রণী ব্যাংকের প্রিন্সিপাল শাখায় একজন কর্মকর্তার দেহে নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়াছে।

“সার্বিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংক লেনদেন ও ব্যাংক খোলা রাখার সময় কমিয়েছে।”

করোনাভাইরাসের ব্যাপক সংক্রমণ ঠেকাতে গত ২৬ মার্চ থেকে সারা দেশে সব ধরনের অফিস-আদালত এবং যানবাহন চলাচল বন্ধ রেখে সবাইকে যার যার বাড়িতে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

তবে ছুটির মধ্যেও জরুরি সেবাগুলো চালু রাখার অংশ হিসেবে সীমিত আকারে ব্যাংকের লেনদেন চালু রাখা হয়েছে।

প্রথম দফায় সকাল ১০টা থেকে দুপর ১২টা পর্যন্ত ব্যাংক লেনদেনের সময় ঠিক করে দিয়েছিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তখন ব্যাংক খোলা রাখা হচ্ছিল বেলা দেড়টা পর্যন্ত।

এরপর ২ এপ্রিল এক সার্কুলারে ব্যাংক লেনদেনের সময় এক ঘণ্টা বাড়িয়ে সকাল ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত করা হয়। আর ব্যাংক খোলা রাখতে বলা হয় বেলা ৩টা পর্যন্ত। নতুন ওই সময়সূচি কার্যকর হয় ৫ এপ্রিল থেকে।

সেই নিয়েমে চলার মধ্যেই বুধবার রাজধানীর মতিঝিলে অগ্রণী ব্যাংকের প্রিন্সিপাল ব্রাঞ্চের একজন কর্মকর্তার দেহে নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়লে ওই শাখা বন্ধ করে দেওয়া হয়; কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয় ৬৪ কর্মকর্তাকে।
তার এক দিনের মাথায় বাংলাদেশ ব্যাংক নতুন সার্কুলার দিয়ে লেনদেনের সময় আধা ঘন্টা কমিয়ে আনলো।

তবে গুরুত্বপূর্ণ ও জরুরি বৈদেশিক লেনদেনের জন্য ব্যাংকগুলো তাদের নিজস্ব বিবেচনায় নির্বাচিত এডি শাখার (যেসব শাখায় বিদেশি মুদ্রা লেনদেন হয়) লেনদেন বেলা দেড়টা পর্যন্ত চালাতে পারবে।

সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো নতুন সার্কুলারে বলা হয়েছে, যে সব এলাকায় সরকার বা স্থানীয় প্রশাসন ‘লকডাউন’ ঘোষণা করেছে সে সব এলাকায় সকল ব্যাংকের শাখা বন্ধ থাকবে।

সেই সঙ্গে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন অনুযায়ী ব্যাংকে উপস্থিত সকলের মধ্যে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে সার্কুলারে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ