করোনা ভাইরাসে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা ৫৩ হাজারে ছাড়াল

প্রকাশিতঃ ১০:৪১ পূর্বাহ্ণ, শুক্র, ৩ এপ্রিল ২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন বিশ্বের ৫৩ হাজারের বেশি মানুষ। আর এ ভাইরাসটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১০ লাখ ১৫ হাজারের বেশি মানুষ।

আন্তর্জাতিক জড়িপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারস এ তথ্য জানিয়েছে। শুক্রবার বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সংস্থাটির ওয়েবসাইটে দেখা যায়, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১০ লাখ ১৫ হাজার হাজার ৮৭৭ জন। আর ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়ে এখন পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন ৫৩ হাজার ২১৮ জন।

ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে এ ভাইরাটি প্রথমে দেখা যায়। পরে ভাইরাসটি মহামারী আকারে বিশ্বের ১৯৯ টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে।

বর্তমানে এ ভাইরাসটিতে সবচেয়ে বেশি সংক্রমিত দেশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র সবার ওপরে রয়েছে। আর মৃত্যুর দিক দিয়ে ইতালি এগিয়ে রয়েছে। এর পরেই অবস্থান স্পেনের। এ দিক থেকে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

করোনায় আক্রান্তের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রই এখন সবার ওপরে। দেশটিতে দুই লাখ ৩৫ হাজার ৭৪৭ জনের দেহে কভিড-১৯ ধরা পড়েছে। মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে পাঁচ হাজার ৬২০ জনে।

করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি এখনও ইতালিতে। গতকাল পর্যন্ত দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ১৫ হাজার ২৪২ জন, আর প্রাণ হারিয়েছেন ১৩ হাজার ৯১৫ জন। করোনাভাইরাস সংক্রমণে এক দিনে রেকর্ডসংখ্যক লোকের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে স্পেনে মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক লাখ ১০ হাজার ২৩৮ জনে।

ফ্রান্সে গতকাল ৪৭১ জন মারা গেছেন। দেশটিতে মোট মৃত্যু হয়েছে চার হাজার ৫০৩ জনের। আক্রান্ত হয়েছেন ৫৯ হাজার ১০৫ জন। ইরানে গতকাল আরও ১২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল পর্যন্ত মারা গেছেন তিন হাজার ১৩৬ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ৫০ হাজার ৪৬৮ জন। তবে এর মধ্যে ১৬ হাজার ৭১১ জন সুস্থ হয়েছেন।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ