করোনা রুখতে ভারতজুড়ে ‘জনতা কারফিউ’ ঘোষণা মোদির

প্রকাশিতঃ ৯:২৭ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ১৯ মার্চ ২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মহামারীতে পরিণত হওয়া করোনাকে রুখতে পুরো ভারতজুড়ে কারফিউ ঘোষণা করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে দেশ জুড়ে উদ্বেগ বাড়ছে। ইতিমধ্যেই ভারতে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবারও ৭০ বছরের এক বৃদ্ধ মারা গিয়েছেন পঞ্জাবে।

এ ছাড়া দেশে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১৬৭ জন। তাঁদের মধ্যে ইতিমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৫ জন। প্রতিদিনই আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। এমনই পরিস্থিতিতে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

ভাষণে তিনি বলেন, ২২ মার্চ, আগামী রবিবার পালন করতে হবে জনতা কার্ফু। দেশ জুড়ে এই জনতা কার্ফু পালন করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘জনতা কার্ফু’ হল জনতার দ্বারা, জনতার জন্য নিজেদের উপর জারি করা কার্ফু। ওই দিন সকাল ৭ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত কেউ বাড়ি থেকে বেরবেন না।’ এইভাবে সংযম অভ্যাস করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। তাঁর দাবি, এটা হবে দেশহিতের জন্য একটা প্রতীক।

এছাড়া, ওইদিন বিকেল ৫ টায় সাইরেন বাজানো হবে। সেইসময় দেশের সব মানুষ জানালায়, দরজায় বা ব্যালকনিতে দাঁড়াবে। ডাক্তার, চিকিৎসাকর্মী, পরিবহন কর্মীর মত যেসব মানুষ নিজেদের প্রাণের তোয়াক্কা না করে মানুষের জন্য কাজ করছেন, তাঁদের ধন্যবাদ জানানো হবে সেদিন।

মোদী বলেন, করতালি দিয়ে, ঘণ্টা বাজিয়ে অভিবাদন জানাতে হবে তাঁদের।

মোদি তার ভাষনে বলেন, দেশের মানুষের কাছে আমার আর্জি ‘জনতা কার্ফু’ জারি হোক। আগে যখন যুদ্ধ পরিস্থিতি হত, তখন বিভিন্ন জায়গায় ব্ল্যাক আউট করে দেওয়া হত। যুদ্ধ না হলেও ব্ল্যাকআউটের ড্রিলও হত। আগামী কয়েক সপ্তাহ বাড়ি থেকেই কাজ করার চেষ্টা করুন। খুব প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বেরবেন না।

আপনি যদি মনে করেন যে আপনি ঠিক আছেন, আপনার কিছু হবে না। এই ভেবে যদি সব জায়গায় ঘোরাফেরা করেন, তাহলে আপনি ঠিক নন। আপনি আপনার পরিবারের সঙ্গে অন্যায় করবেন। সামাজিক দূরত্ব অত্যন্ত জরুরি। সংকল্প বা সংযমের দ্বারাই এই ভাইরাস থেকে বাঁচতে হবে।

আমরা সংক্রমণ থেকে নিজেদের বাঁচাব, অন্যদেরও বাঁচাব। আমরা সুস্থ থাকলে, জগৎ সুস্থ থাকবে। কেন্দ্রীয় সরকারের সব নির্দেশ পালন করতে হবে, সেই সংকল্প নিতে হবে।

আমরা এই মহারামী রুখতে একজন দায়িত্বশীল নাগরিকের দায়িত্ব পালন করব। ভারত ১৩০ কোটির দেশ, প্রগতিশীল দেশ। আমাদের দেশে করোনার প্রভাব সামাল দেওয়া সহজ নয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ মানুষকে আইসোলেট করে পরিস্থিতি সামাল দিচ্ছে।

তিনি বলেন, যেহেতু এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের কোনও প্রতিষেধক বেরোয়নি। তাই আমি আপনাদের কাছে আগামী কয়েকটা সপ্তাহ চাইছি। আপনাদের কাছ থেকে আমি আজ পর্যন্ত যা চেয়েছি, তা পেয়েছি। আপনারা আমাকে নিরাশ করেননি।

বিশ্বে জুড়ে আতঙ্কের পরিস্থিতি রয়েছে উল্লেখ করে মোদী বলেন, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত দেশের শাতধিক মানুষ।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ