কোটালীপাড়ায় সৎ মাকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা

প্রকাশিতঃ ৭:৪৪ অপরাহ্ণ, রবি, ৫ জুলাই ২০

দুলাল বিশ্বাস, গোপালগঞ্জ : জেলার কোটালীপাড়া উপজেলায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে কুলসুম বেগম (৬৮) নামে এক বৃদ্ধাকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করেছে তার সৎ সন্তানেরা।

শনিবার (৪ জুলাই) রাতে উপজেলার রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের রাজিন্দারপাড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পুলিশ ওইদিন রাতেই উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৪ নারীকে গ্রেফতার করেছে। হত্যার শিকার কুলসুম বেগম রাজিন্দারপাড় গ্রামের সবর আলী সিকদারের দ্বিতীয় স্ত্রী।

কুলসুম বেগমের ভাই স্কুল শিক্ষক কালাম ফকির জানান, সৎ ছেলেদের সাথে জমিজমা নিয়ে কুলসুম বেগমের বিরোধ চলে অসিছিলো। কুলসুম বেগমকে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করার জন্য শনিবার সকাল ১০ টার দিকে সৎ ছেলে আলাউদ্দিন সিকদার, স্ত্রী রোকেয়া বেগম, মেয়ে লিমা সিকদার ও ভাই রিপন সিকদার কুলসুম বেগমকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এসময় কুলসুম বেগমের নিজের ২ ছেলে ও ছেলের বউয়েরা তাকে উদ্ধারের জন্য এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা তাদেরকেও মারপিট করে।

ওই স্কুল শিক্ষক আরও জানান, “তার বোন কুলসুমকে উদ্ধার করে প্রথম কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পরে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল ও বিকেলে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত ৮টার দিকে সে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। আমরা এই নির্মম হত্যাকাণ্ডের বিচার চাই।”

কুলসুম বেগমের সৎ ছেলেরা পলাতক থাকার কারণে তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

কোটালীপাড়া থানার ওসি শেখ লুৎফর রহমান বলেন, “এ ঘটনায় শনিবার রাতেই কুলসুম বেগমের ছেলে স্বপন সিকদার বাদী হয়ে ৭ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। রাতেই অভিযান চালিয়ে এ ঘটনায় জড়িত ৪ নারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। প্রাথমিক ভাবে আমরা পিটিয়ে হত্যার প্রমাণ পেয়েছি।”

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।