খুলনায় আমরণ অনশনে পাটকল শ্রমিকরা

প্রকাশিতঃ ১২:২১ অপরাহ্ণ, বুধ, ১১ ডিসেম্বর ১৯

নিউজ ডেস্ক: নিয়মিত মজুরি পরিশোধসহ ১১ দফা দাবিতে খুলনা অঞ্চলের রাষ্টায়ত্ত ৯ পাটকলের হাজারো শ্রমিক আমরণ অনশন শুরু করেছেন।

মঙ্গলবার বিকাল ৩টা থেকে শ্রমিকরা অনশন শুরু করেন। বুধবার (১১ ডিসেম্বর) সকালেও তা অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে শ্রমিকরা এই শীতের রাতে তাঁবু টাঙিয়ে সড়কে অবস্থান নিয়েছিলেন। বুধবার সকালে অনশনে দুই শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তারা হলেন- প্লাটিনাম জুট মিলের শ্রমিক হিরণ ও খায়ের।

রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-ননসিবিএ সংগ্রাম পরিষদের ডাকা কর্মসূচির অংশ হিসেবে খুলনার ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, খালিশপুর, দৌলতপুর, স্টার, ইস্টার্ন, আলিম, জেজেআই ও কার্পেটিং মিলের শ্রমিকরা নিজ নিজ পাটকলের উৎপাদন বন্ধ রেখে মিলের প্রধান ফটকে এ কর্মসূচি পালন করছেন।

এ ছাড়া যশোরে দুটি পাটকল শ্রমিকরা আন্দোলনে নেমেছেন।

শ্রমিকরা জানান, নিয়মিত মজুরি না পাওয়ায় তারা মানবেতর জীবনযাপন করছেন। সন্তানদের লেখাপড়ার খরচ, ঘরভাড়া দিতে না পারা– এ অবস্থায় বাধ্য হয়ে আন্দোলনে নেমেছেন।

তারা জানান, সব সেক্টরে মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন হলেও পাটকল শ্রমিকদের বেলায় অনীহা প্রকাশ করা হচ্ছে। মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, পাট খাতে প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ ও পিপিপি বাতিলসহ ১১ দফা দাবিতে তারা আন্দোলনে নেমেছেন।

ক্রিসেন্ট জুট মিলের সাবেক সভাপতি মো. মুরাদ হোসেন বলেন, শ্রমিকরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজ বন্ধ রেখে অনশন পালন করছেন। ১১ দফা দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-ননসিবিএ সংগ্রাম পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক খলিলুর রহমান জানান, প্রচণ্ড শীত ও ক্ষুধার কারণে তারা অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। সমস্যা সমাধানে ঢাকায় মঙ্গলবার বৈঠক হলেও তা ফলপ্রসূ না হওয়ায় শ্রমিকরা অনশন অব্যাহত রেখেছেন। যতই কষ্ট হোক, দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত অনশন চলবে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ