গাইবান্ধায় একসঙ্গে চার সন্তান প্রসব

প্রকাশিতঃ ৭:৫২ অপরাহ্ণ, রবি, ৯ জুন ১৯

নিউজ ডেস্ক: গাইবান্ধার এক ক্লিনিকে একসঙ্গে চার সন্তান জন্ম দিয়েছেন এক প্রসূতি। জন্ম নেওয়া ৪ শিশু ও তাদের মা সুস্থ আছে। শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সাঘাটা উপজেলার বোনারপাড়া ইউনিয়নের শিমুলতাইড় গ্রামের ভ্যানচালক শাহ আলমের স্ত্রী দুলালী বেগম (৩৫) এ চার শিশু প্রসব করেন। গাইবান্ধা ক্লিনিকে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে দুই ছেলে ও দুই মেয়ে শিশুর জন্ম দেন তিনি।

তাদের মধ্যে দুই মেয়েশিশুকে গাইবান্ধা ক্লিনিকে রেখে দুই ছেলেশিশুকে শনিবার রাতেই রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগে ভর্তি করা হয়। ওই ক্লিনিকের স্বত্বাধিকারী ডা. একরাম হোসেন জানান, ওই দুই ছেলেশিশুর ওজন কম। শারীরিক দুর্বলতাও রয়েছে। এ কারণে তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

চার নবজাতকের বাবা শাহ আলম জানান, গর্ভবতী অবস্থায় দুলালীর পেট অস্বাভাবিক বড় হওয়ার কারণে বিভিন্ন সময়ে ডাক্তারদের চিকিৎসাসেবা নেওয়া হয়। সেসময় ডাক্তাররা জানান, দুলালীর পেটে তিন সন্তান রয়েছে। এরপর শনিবার সিজারের মাধ্যমে ৪ শিশুর জন্ম হয়।

গাইবান্ধা ক্লিনিকের স্বত্ত্বাধিকারী ডা. একরাম হোসেন জানান, শনিবার বিকেলে দুলালী বেগম পেটের ব্যাথা নিয়ে ক্লিনিকে ভর্তি হন। আলট্রাসনোগ্রাম করে আমাদের ধারণা ছিল, তিনটি সন্তান হবে। পরে অস্ত্রোপচারে চার সন্তানের জন্ম হয়। আমাদের ক্লিনিকে একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম এটাই প্রথম।

শাহ আলম বলেন, অভাবের সংসারে আমার আগের ৩টি সন্তান রয়েছে। তাদের মধ্যে এক মেয়ে অষ্টম শ্রেণিতে, অন্যটি ৪র্থ শ্রেণিতে এবং ছেলে ১ম শ্রেণিতে পড়াশুনা করে। নতুন করে একসঙ্গে ৪ সন্তানের জন্ম হওয়ায় সন্তানদের লালন-পালনে কষ্ট হবে। তবুও আল্লাহর দানকে যতটুকু ভালো রাখা যায় একজন বাবা হিসেবে সে দায়িত্ব পালন করবো।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ