গোল উৎসব করে জিতলো মেসির বার্সেলোনা

প্রকাশিতঃ ১২:২৩ অপরাহ্ণ, রবি, ৮ ডিসেম্বর ১৯

স্পোর্টস ডেস্ক: লা লিগায় নিজেদের মাঠে মায়োর্কার বিপক্ষে গোল উৎসব করেছে বার্সেলোনা। মেসির হ্যাটট্রিকের সঙ্গে সুয়ারেজ, গ্রিজমানের গোলে ৫-২ গোলের বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে ভালভার্দে শিষ্যরা। এই জয়ে রিয়ালকে হটিয়ে আবারও পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান ছিনিয়ে নিলো মেসিরা।

ক্যাম্প ন্যুর আজকের রাতটি ভক্তদের জন্য অন্য রকমই ছিলো। দলের প্রাণভোমরার ষষ্ঠ ব্যালন ডি’অর জয় উদযাপনের রাতে স্টেডিয়াম ভর্তি দর্শকদের সামনে নান্দনিক ফুটবল উপহার দেয় বার্সা। গোলের শুরুটা করেন ফরাসি তারকা গ্রিজমান। গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টের স্টেগানের বুদ্ধিদীপ্ত লম্বা ক্রসের সুবাদে প্রতিপক্ষের গোলরক্ষককে একা পেয়ে জাল খুঁজে নিতে ভুল করেননি গ্রিজমান। ৭ মিনিটেই দলকে এগিয়ে দেন।

এরপর প্রতিপক্ষ শিবিরে একের পর এক আক্রমণ চালায় বার্সা। ম্যাচের ১৭ মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ের বাঁকানো শটে এক অসাধারণ গোল করেন মেসি। বলের যোগনদাতা ছিলেন গ্রিজমান। খেলার ৩৫ মিনিটে গোল মায়োর্কার হয়ে গোল পরিশোধ করেন বুদিমির।

এরপর ৪১ মিনিটে আবারও ডি বক্সের বাইরে থেকে গোল করেন মেসি। দুই মিনিট পর বক্সের ভেতরে ডি জংয়ের বাড়ানো বলে ব্যাক হিল করে এক নান্দনিক গোল করেন লু্ইস সুয়ারেজ। ফলে প্রথমার্ধেই ৪-১ গোলে এগিয়ে যায় বার্সা।

দ্বিতীয়ার্ধেও মায়োর্কার উপর চড়াও হয় বার্সা। তবে গোলের দেখা পায়নি উল্টো ৬৪ মিনিটে আরও একটি গোল খেয়ে বসে। এবারও মায়োর্কার হয়ে গোল করেন বুদিমির।

খেলার শেষভাগে এসে ম্যাচের ৮৩ মিনিটে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন মেসি। এর সুবাদে লা লিগার ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি হ্যাটট্রিকের (৩৫টি) গৌরব অর্জন করেন বার্সার প্রাণভোমরা। পাশাপাশি চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ গোলদাতাও (১২টি) এখন মেসি।

শেষ পর্যন্ত ৫-২ গোলের বড় ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ভালভার্দে শিষ্যরা। এই জয়ের সুবাদে ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে লা লিগার শীর্ষে পৌঁছাল বার্সা। রিয়ালের পয়েন্ট বার্সার সমান হলেও গোল ব্যবধানে পিছিয়ে পড়েছে দলটি।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ