চিটিং সার্ভিস নামে যাত্রীদের সাথে প্রতারণা হচ্ছে: কাদের

প্রকাশিতঃ ৪:০৪ অপরাহ্ণ, রবি, ১৭ নভেম্বর ১৯

নিউজ ডেস্ক: গণপরিবহনে সিটিং সার্ভিসের স্টিকার লাগিয়ে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়ে হুশিয়ার করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, চিটিং সার্ভিস নামে বাস মালিকরা যাত্রীদের সাথে প্রতারণা করছে।

রোববার রাজধানীর কুড়িলে আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের (এআইইউবি) অডিটোরিয়ামে ‘সড়ক নিরাপত্তা ও সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮’ বিষয়ক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

‘নিরাপদ সড়ক আইন, ২০১৮’ কার্যকরের বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, আইন কার্যকরের মাধ্যমে বেশি জরিমানা আদায় করা হলেও এর মাধ্যমে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে।

‘নতুন সড়ক আইনে বেশি জরিমানা মানে বেশি অর্থ নেয়া নয়। বেশি জরিমানা দিলে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে’-যোগ করেন কাদের।

সড়কে শৃংখলার অভাব রয়েছে মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, অবকাঠামোগত উন্নয়নের কমতি নেই। কিন্তু, আমাদের সংকট হচ্ছে সড়কে শৃঙ্খলা। এই শৃঙ্খলা ফেরাতে সড়ক পরিবহন আইন বাস্তবায়নে যাচ্ছি। আমাদের সমস্যা হচ্ছে, কোথাও দুর্ঘটনা ঘটলে স্থানীয় জনগণ রাস্তায় নেমে আসে।

সড়কে বিশৃঙ্খলার জন্য মোটরসাইকেলকে দায়ী করে ওবায়দুল কাদের বলেন, সড়কে বিশৃঙ্খলার জন্য মোটরসাইকেল দায়ী। তারা নিজেদের পথের রাজা মনে করে। এটা একটা উপদ্রব। আমরা যে পারি না, তা না। এখন ঢাকা শহরে কোথাও হেলমেট ছাড়া চালক-যাত্রী পাবেন না। আর যারা বাইকে হেলমেট পরে না, তারা হলো রাজনৈতিক কর্মী। এখন আগের চেয়ে উল্টো পথে চলার অভ্যাস কমেছে। ভিআইপি বিড়ম্বনাও অনেক কমেছে।

পদ্মা সেতুর কাজ দ্রুত শেষ করার আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি বলেন, পদ্মাসেতু এখন দাঁড়িয়ে গেছে। আমি ১৭৯ বার সেই সেতু পরিদর্শন করেছি। ২০২১ সালেই পদ্মাসেতু খুলে দেয়া হবে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ