চিলিকে উড়িয়ে ফাইনালে পেরু

প্রকাশিতঃ ১:০৬ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ৪ জুলাই ১৯

স্পোর্টস ডেস্ক: বল দখল, নির্ভুল পাস, গতিময়তা, ছন্দ সব দিকেই পেরুর চেয়ে অনেকটাই এগিয়ে ছিল চিলি। পরিংখ্যান, ইতিহাস ও শক্তিমত্তাতেও এগিয়ে ছিল গত দুবারের চ্যাম্পিয়নরা। তবে ফুটবল ঈশ্বরের ইচ্ছায় ছিল অন্য কিছু। চিলি নয় ফাইনালে উঠল পেরু। বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের ৩-০ গোলে হারিয়ে ৪৪ বছর পর কোপা আমেরিকার ফইনালে উঠল পেরু। ফাইনালে শক্তিশালী ব্রাজিলের বিপক্ষে লড়বে দলটি।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৬টায় পোর্তো অ্যালেগ্রের অ্যারেনা দো গারমিয়োতে সবাইকে অবাক করে দিয়ে দ্বিতীয় মিনিটেই আক্রমণে উঠে পেরু। কুয়েভার ভুলে সেবার গোল না পেলেও চিলিকে ভয় পাইয়ে দিতে সেটা যথেষ্ট ছিল।

এরপর টানা চিলির রক্ষণভাগকে ব্যস্ত রাখে পেরু। জমাট আক্রমণ না হওয়ায় গোল হয়নি। গোলের জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি দলটিকে। ২১তম মিনিটে ক্যারিলোর উঁচু করে বাড়ানো বল পেয়ে চিলির জাল কাপান এডিসন ফ্লোরেজ। ৩৮তম মিনিটে বল ধরতে ডিবক্সের বাইরে চলে যান গোলরক্ষক গ্যাব্রিয়েল অ্যারিয়াস। সেই সুযোগে ইওশিমার ইওতুন ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। দুই গোল হজম করা চিলি ব্যবধান কমাতে মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রায় পুরোটা সময় চিলি বলের দখল রাখে। তবে গোল তো হয়েই নি উল্টো ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে আরেকটি গোলহজম করে বসে চিলি।

এনিয়ে ৪৪ বছর পর পেরু কোপার ফাইনালে উঠল। সর্বশেষ ১৯৯৫ সালে তারা ফাইনালে উঠেছিল। সেবার কলম্বিয়াকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নও হয়েছিল দলটি। এর আগে ১৯৩৯ সালে প্রতিযোগিতার ফাইনালে উঠেছিল পেরু। তখন অবশ্য এর নাম ছিল সাউথ আমেরিকান চ্যাম্পিয়নশিপ। ঘরের মাটিতে সেবার উরুগুয়েকে হারায় পেরু।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ