জরুরি সেবা চালু রাখতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ৬ নির্দেশনা

প্রকাশিতঃ ৭:৫৮ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ৯ এপ্রিল ২০

সময় জার্নাল ডেস্ক : করোনাভাইরাস মোকাবিলা এবং এর ব্যাপক বিস্তার রোধে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে আগামী ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখ পর্যন্ত সাধারণ ছুটি বিদ্যমান রয়েছে।

সরকার ঘোষিত এই সাধারণ ছুটি পর্যন্ত সারাদেশে যানবাহন চলাচল নিয়স্ত্রণ করা হয়েছে। তবে জরুরি কিছু সেবা স্বাভাবিকভাবে চালু রাখার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ৬টি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড. আহমদ কাউকাউস স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এসব নির্দেশনার কথা বলা হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, জরুরি পরিষেবা যেমন-বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস, ফায়ার সার্ভিস, পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট এসব চালু থাকবে। এসব কাজে নিয়োজিত যানবাহন চলাচল করবে।

চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত এবং ওষুধসহ চিকিৎসা সরঞ্জাম বহনকারী যানবাহন চালু থাকবে। ওষুধ শিল্প সংশ্লিষ্ট গাড়িও চলবে।

নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রী, খাদ্যদ্রব্য, শিশুখাদ্য, দুগ্ধ ও দুগ্ধজাত দ্রব্য এবং পশুখাদ্য পরিবহনকাজে নিয়োজিত যানবাহন ও কর্মী ছুটির আওতামুক্ত।

কৃষিপণ্য, সার, কীটনাশক ও জ্বালানি ইত্যাদি পণ্য পরিবহন কাজে নিয়োজিত যানবাহন ও কর্মী ছুটির আওতাবহির্ভূত থাকবে।

কৃষিজ পণ্য উৎপাদন, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের উৎপাদন এবং জীবনধারণের মৌলিক পণ্য উৎপাদন ও পরিবহন কাজে নিয়োজিত যানবাহন ও কর্মী ছুটির আওতামুক্ত থাকবে। বাসস

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ