জয়পুরহাটে এক করোনা রোগীর সংস্পর্শে ৪ জনসহ আক্রান্ত ৮

প্রকাশিতঃ ১২:২৯ পূর্বাহ্ণ, রবি, ২৪ মে ২০

মোমেন মুনি, জয়পুরহাট : জেলার সদর উপজেলায় গোপীনাথপুর আইসোলেশন থাকা এক করোনা রোগীর সংস্পর্শে এসে একই গ্রামের ভাদসা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান তার পুত্রসহ ৪ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। একইদিনে জেলায় আরও ৪ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

এ নিয়ে এ জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩০ জনে। শনিবার সকালে আরও ৪ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন এ নিয়ে জেলায় ৩৭ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেন।

শনিবার (২৩ মে) বেলা ১১ টায় ঢাকা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ল্যাবেরেটরী মেডিসিন এন্ড রেফারেল সেন্টার থেকে পাঠানো রিপোর্টে ১১৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১০৭ জনের নমুনা নেগেটিভ হলেও ৮ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন সিভিল সার্জন ডা: সেলিম মিঞা ।

করোনা আক্রান্তরা হলেন, সদর উপজেলার ভাদসা পালি গ্রামের ভাদসা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও তার পুত্র, ২৫ বছরের যুবক, ৪৫ বছরের পুরুষ, ক্ষেতলাল উপজেলার তারাকুল গ্রামের ৫২ বছরের পুরুষ, বড়াইল গ্রামের ২৫ বছরের যুবতী, দৌলতপুর গ্রামের ৩৮ বছরের নারী, সূর্য্যবান গ্রামের ৪০ বছরের পুরুষ।

জয়পুরহাট সিভিল সার্জন ডা. সেলিম মিঞা জানান, আক্রান্তরা ঢাকা,নারায়নগঞ্জ ও আক্রান্ত রোগীর সংস্পর্শে এসেছিল, হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ল্যাবেরেটরী মেডিসিন এন্ড রেফারেল সেন্টার থেকে পাঠানো রিপোর্টে ১১৫ জনের মধ্যে ৮ জনের পজিটিভ হয়।

আক্রান্ত সকল করোনা রোগীকে আক্কেলপুর উপজেলার গোপীনাথপুর অব হেলথ টেকনোলজির আইসোলেশন ইউনিটে (সেফ অতিথিশালা) পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।