ঝাড়খণ্ড বিধানসভা নির্বাচন: এগিয়ে কংগ্রেস জোট

প্রকাশিতঃ ১২:১৭ অপরাহ্ণ, সোম, ২৩ ডিসেম্বর ১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ঝাড়খণ্ডও কি হাতছাড়া হতে চলেছে বিজেপির? নাকি সব এক্সিট পোলের হিসেব উল্টে ঝাড়খণ্ডে স্বমহিমায় ফিরবে গেরুয়া শিবির? সব উত্তর পরিষ্কার হয়ে যাবে আজ। ৩০ নভেম্বর থেকে ২০ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৮১ আসনের ঝাড়খণ্ড বিধানসভায় ৫ দফায় ভোট হয়েছে। আজ সেই ভোট গণনা চলছে।

সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) সকাল ৮টায় ঝাড়খণ্ডের ২৪টি কেন্দ্রে গণনা শুরু হয়েছে। কয়েকটি বুথ ফেরত জরিপে বলা হয়েছে, কংগ্রেস ও ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা (জেএমএম) এখন পর্যন্ত এগিয়ে রয়েছে।

ভারতীয় একটি গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, বিভিন্ন বুথফেরত সমীক্ষার ফলে ইঙ্গিত, ঝাড়খণ্ডে জিতছে কংগ্রেস-জেএমএম জোট। ঝাড়খণ্ড হাতছাড়া হচ্ছে বিজেপির। সম্প্রতি মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় জোর ধাক্কা খেয়েছে এনডিএ। ঝাড়খণ্ডে তাই ক্ষমতায় ফেরাটা বিজেপির কাছে সম্মানের বিষয়। ঝাড়খণ্ডে বেশ কয়েকটি এনডিএ জোটে থাকা দল একক ভাবে লড়েছে অল ঝাড়খণ্ড স্টুডেন্টস ইউনিয়ন, রামবিলাস পাসোয়ানের লোকজনশক্তি পার্টি ও নীতিশ কুমারের জনতা দল ইউনাইটেড।

অপরদিকে ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার হেমন্ত সোরেনের নেতৃত্বে জেএমএম-কংগ্রেস-আরজেডি বিরোধী জোট লড়েছে। তিনটি এক্সিট পোলের মধ্যে দুটিতেই ইঙ্গিত, বিরোধী জোটই এবার ক্ষমতায় ফিরবে ঝাড়খণ্ডে। একটি বুথফেরত সমীক্ষা বলেছে, ত্রিশঙ্কু হতে পারে ফল। কোনও দলই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না। ২০১৪ সালে ঝাড়খণ্ডে বিজেপি জিতেছিল ৩৭টি আসন। তাদের জোটসঙ্গী এজেএসইউ জিতেছিল ৫টি আসন।

‘ইন্ডিয়া টুডে-অ্যাক্সিস মাই ইন্ডিয়া’র সমীক্ষা বলছে, ৮১ আসনের ঝাড়খণ্ড বিধানসভায় ৩৮-৫০টি আসন যেতে পারে জেএমএম-কংগ্রেস-আরজেডি জোটের হাতে। আর বিজেপির আসতে পারে ২২-৩২টি আসন। টাইমস নাও-এর এক্সিট পোল তিন দলের জোটকে দিয়েছে ৪৪টি আসন, আর বিজেপির ভাগ্যে ২৮টি।

আইএএনএস-সি ভোটার-এবিপি সমীক্ষায় জোট পাচ্ছে ৩৫টি আসন, আর বিজেপি ৩২টি। অর্থাৎ, কোনও পক্ষই ম্যাজিক ফিগার ৪১-এর গণ্ডি পেরোতে পারছে না।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ