টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ১ রোহিঙ্গা নিহত

প্রকাশিতঃ ১১:২৯ পূর্বাহ্ণ, রবি, ১৯ জানুয়ারি ২০

নিউজ ডেস্ক: কক্সবাজারের টেকনাফে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক রোহিঙ্গা নিহত হয়েছেন।
বিজিবির দাবি, নিহত ব্যক্তি একজন মাদক পাচারকারী। নিহত মোহাম্মদ আইয়াছ (২৫) উখিয়ার কুতুপালং ২ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ডি-৪ ব্লকের মো. জামাল হোসেনের ছেলে।

রোববার ভোররাতে হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুরা সংলগ্ন নাফ নদীর শেকলঘেরা এলাকায় ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনাটি ঘটে বলে জানিয়েছেন বিজিবির টেকনাফ ২ ব্যাটালিয়ানের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. ফয়সল হাসান খান।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফয়সল বলেন, “ভোররাতে নাফ নদীর জাদিমুরা পয়েন্টের শেকলঘেরা এলাকা দিয়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার বড় একটি চালান আসার খবের বিজিবির একটি দল অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে মিয়ানমারের লালদ্বীপ থেকে একটি নৌকা যোগে কয়েকজন লোককে নাফ নদী অতিক্রম কূলের দিকে আসতে দেখে বিজিবির সদস্যরা থামার জন্য নির্দেশ দেয়।

“এতে নৌকায় থাকা লোকজন বিজিবির সদস্যদের লক্ষ্য করে অতর্কিত গুলি ছুড়তে থাকে। বিজিবির সদস্যরাও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে নৌকায় থাকা তিনজন ঝাঁপ দিয়ে শূন্যরেখা অতিক্রম করে মিয়ানমারের দিকে পালিয়ে যায়।”

গোলাগুলি থেমে গেলে নৌকায় তল্লাশি করে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায় বলে জানান বিজিবি কর্মকর্তা।

টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক গুলিবিদ্ধ ব্যক্তিকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।

গুলিতে তিনজন বিজিবি সদস্যও আহত হন বলে জানান লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফয়সল।

নৌকাটি তল্লাশি করে ২ লাখ ২০ হাজার ইয়াবা, ১টি দেশীয় বন্দুক, ১টি গুলি ও ১টি গুলির খালি খোসা পাওয়া যায় বলে জানান তিনি।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ