ট্রেনের সব আসনে টিকিট বিক্রি শুরু, অনলাইনে অর্ধেক

প্রকাশিতঃ ১২:১৫ অপরাহ্ণ, বুধ, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০

করোনা পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে ট্রেনের ধারণক্ষমতার অর্ধেক টিকিট বিক্রির অবস্থান থেকে সরে এসেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। এছাড়া করোনাভাইরাসের কারণে বন্ধ থাকা ট্রেনযোগাযোগ স্বাভাবিক করার অংশ হিসেবে তৃতীয় ধাপে আজ আরো ১৮ জোড়া ট্রেন চালু করা হলো দেশে।

বুধবার থেকে প্রতিটি ট্রেনের শতভাগ সিটের টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। কোনো আসন ফাঁকা রাখা হবে না। তবে স্ট্যান্ডিং বা আসনবিহীন টিকিট বিক্রি করা হবে না।

গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ রেলওয়ের উপপরিচালক নাহিদ হাসান খাঁন স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ কথা জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ট্রেনের অর্ধেক আসন অনলাইন/মোবাইল অ্যাপসে আর অর্ধেক টিকিট কাউন্টারে বিক্রি করা হবে। টিকিট ইস্যু ও জারির ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি পরিপালনের নির্দেশনা অপরিবর্তিত থাকবে।

করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতিতে গত ২৫ মার্চ সারা দেশে ট্রেন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়। সরকারের সাধারণ ছুটি তুলে নেওয়ার পর গত ৩১ মে থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে ট্রেন চলতে শুরু করে। ধাপে ধাপে ট্রেনের সংখ্যা বাড়ানো হয়। আগস্টের মধ্যে সব আন্ত নগর ট্রেন চালু করা হয়।

বাংলাদেশে রেলওয়ের হিসাব অনুযায়ী, স্বাভাবিক সময়ে সারা দেশে ৩৬২টি ট্রেন চলাচল করে। এর মধ্যে ১০২টি আন্ত নগর আর ২৬০টি লোকাল ও পণ্যবাহী। বর্তমানে ৯১ জোড়া বা ১৮২টি ট্রেন চলছে। আজ আরো ১৮ জোড়া বা ৩৬টি ট্রেন চালু হবে। অর্থাৎ আজ থেকে সারা দেশে ২১৮টি ট্রেন চলবে।

রেলের কর্মকর্তারা বলছেন, করোনা সংক্রমণের কথা চিন্তা করে একটি কোচ বা বগির ধারণক্ষমতার অর্ধেক টিকিট বা ৫০ শতাংশ টিকিট বিক্রি করা হয়। একটি আসনের পাশে একটি করে আসন ফাঁকা রেখে টিকিট বিক্রি করা হয়। তবে এখন করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে চলেছে। অনান্য গণপরিবহনে শতভাগ যাত্রী বহন করা হচ্ছে। আসন ফাঁকা রেখে যাত্রী বহন করতে গিয় বড় লোকসানে পড়ছে রেল। সেই জায়গা থেকে বেরিয়ে আসতে শতভাগ টিকিট বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এছাড়া আজ তৃতীয় ধাপে চালু হওয়া ট্রেনগুলো হলো-নাজিরহাট কমিউটার, চট্টগ্রাম-দোহাজারী লোকাল ট্রেন, মোহনগঞ্জ লোকাল ট্রেন, ঝারিয়া ঝাঞ্জাইল লোকাল ট্রেন, উত্তরবঙ্গ মেইল, কাঞ্চন কমিউটার, দিনাজপুর কমিউটার, বুড়িমারী কমিউটার, কুড়িগ্রাম মেইল, রাজবাড়ী এক্সপ্রেস ও ভাটিয়াপাড়া এক্সপ্রেস।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।