ঠাকুরগাঁওয়ে যৌতুকের জন্য গৃহবধুকে হত্যার চেষ্টা

প্রকাশিতঃ ৩:৪৩ অপরাহ্ণ, সোম, ২০ জুলাই ২০

মঈনুদ্দীন তালুকদার হিমেল, ঠাকুরগাঁও : জেলায় গৃহবধুকে যৌতুকের জন্য অমানবিক নির্যাতন করে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে শ্বশুড়বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। গত তিনদিন ধরে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে মৌসুমী নামের এক গৃহবধু।

গৃহবধু মৌসুমী জানায়, পাঁচ বছর আগে সদর উপজেলা রুহিয়ার মন্ডুলাদাস এলাকার আইযুব আলীর ছেলে আনোয়ার হোসেনের সাথে পারিবারিকভাবে তার বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকে আনোয়ার যৌতুকেরর দাবি করে আসলে শ্বশুড় নজরুল ইসলাম ১ লাখ ১৫ হাজার টাকা প্রদান করে। তারপর কিছুদিন সংসার ভালভাবে চললে এক পুত্র সন্তানের আগমন ঘটে। এর পর আনোয়ার হোসেন প্রায় যৌতুকের জন্য মৌসুমীকে মারপিট করত।

গত শুক্রবার আবার আনোয়ার হোসেন তার মা আলেমা সহ গৃহবধূকে মৌসুমীর উপর যৌতুকেরর জন্য শুরু করে শারীরিক নির্যাতন। নির্যাতনে মাত্রা বেশি হয়ে গেলে অজ্ঞান হয়ে পড়ে মৌসুমী। এ সময় আনোয়ার ও তার মা মৌসুমীকে হত্যার জন্য মুখে কীটনাশক বিষ প্রয়োগ করে বাড়ির পাশে ফেলে দেয়। ঘন্টা খানেক পর প্রতিবেশীরা মৌসুমীকে উদ্ধার করে পাশের উপজেলা আটোযারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক মৌসুমীর শরীর থেকে বিষ বের করে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতাল রের্ফাড করে।

গৃহবধুর পিতা নজরুল ইসলাম কাঁদতে কাঁদতে বলেন, আমি অনেক গরীব মানুষ । বারবার জামাইয়ের চাহিদা মেটানোর সামর্থ্য আমার নেই । তাই তারা সব সময় আমার মেয়েকে মারপিট করত। অনেক বুঝিয়ে লাভ হয়নি এবার হত্যা চেষ্টা করেছে । উপায় না পেয়ে এবার থানায় মামলার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি । প্রস্তুতি চলছে ।

নির্যাতনকারী আনোয়ার হোসেনের মুঠো ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায় । বিভিন্ন সূত্রে চেষ্টা করেও সেই পরিবারের কারো সাথে যোগাযোগ করা যায়নি ।

ইউপি চেয়ারম্যান অনিল কুমার সেন বলেন, গৃহবধু নির্যাতিত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি থাকার বিষয়টি আমাকে অবগত করা হয়েছে । এর আগেও অনেকবার স্থানীয় সালিসের মাধ্যমে আনোয়ার হোসেন ও তার পরিবারকে বোঝানোর চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু তাদের বোঝানো যায়নি। অবশ্যই এটা অনেক বড় অপরাধ । তাই এবার নির্যাতিত পরিবারকে আইনের আশ্রয় নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।