তামাদি পলিসি নিয়ন্ত্রণে আইডিআরএ’র দৃঢ় পদক্ষেপ

প্রকাশিতঃ ৪:২১ অপরাহ্ণ, বুধ, ১১ নভেম্বর ২০

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : তামাদি পলিসির উচ্চহার বাংলাদেশের জীবন বীমা শিল্পের জন্য একটি গুরুতর সমস্যা। এ জন্য তামাদি পলিসির সংখ্যা কমিয়ে আনতে দৃঢ় পদক্ষেপ নিয়েছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)। খবর আইডিআরএ সূত্রের।

অধিকাংশ জীবন বীমা কোম্পানিতে তামাদি পলিসির উচ্চহারের কারণে বীমা শিল্প বছরে প্রচুর রিনিওয়াল প্রিমিয়াম আয় থেকে বঞ্চিত হয়। অন্যদিকে পলিসি তামাদি হলে আইনি বাধ্যবাধকতার কারণে গ্রাহকদের জমা করা টাকাও ফেরত দেওয়া যায় না।

অন্যদিকে বিশেষ ক্ষেত্রে জমা করা প্রিমিয়ামের আংশিক ফেরত দেওয়া হলেও তা পরিমাণে কম। ফলে বীমা গ্রাহকরা সন্তুষ্ট হয় না এবং এটি বীমাশিল্পের প্রতি নেতিবাচক ধারণা তৈরি করে। এ ছাড়া তামাদির উচ্চহার কোম্পানির ব্যবস্থাপনা ব্যয় বৃদ্ধির মাধ্যমে কোম্পানির আর্থিক সামর্থ্যকে সংকুচিত করে।

আইডিআরএর তরফ থেকে জানানো হয়েছে, পলিসি তামাদির কারণ চিহ্নিত করে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে আইডিআরএ। এর মধ্যে রিনিওয়াল প্রিমিয়াম অর্জনে এজেন্টদের নিষ্ক্রিয়তার পাশাপাশি এজেন্টদের কোম্পানি পরিবর্তনের মাধ্যমে পলিসি স্থানান্তরও ব্যাপকভাবে দায়ী।

এ অবস্থায় পলিসি চালু রাখার মাধ্যমে এজেন্টের কোম্পানির রিনিওয়াল প্রিমিয়াম আয় বৃদ্ধিতে সক্রিয় ভূমিকা রাখা, বীমাশিল্পে পেনিট্রেশন বৃদ্ধি এবং সর্বোপরি কোম্পানির ব্যবস্থাপনা ব্যয় নিয়ন্ত্রণের জন্য এজেন্ট কমিশনের বিষয়ে আইডিআরএ বেশ কিছু নির্দেশনাসংবলিত সার্কুলার জারি করেছে।

নির্দেশনাগুলো হলো- লাইফ বীমা কোম্পানির ১ম বর্ষ ও ডেফার্ড প্রিমিয়ামের ওপর প্রদেয় কমিশনের ১০ শতাংশ ২য় বর্ষের নবায়ন প্রিমিয়াম সংগৃহীত হওয়ার পর প্রদেয় নবায়ন কমিশনের সঙ্গে এজেন্ট এবং সবস্তরের উন্নয়ন কর্মকর্তাকে পরিশোধ করতে হবে। বিলম্বিত কমিশনের ওপর পূর্ববর্তী বছরের বিনিয়োগ আয়ের হার অথবা বার্ষিক ৩ শতাংশ সরল সুদ এ দুটির মধ্যে যেটি কম সে হারে মুনাফা প্রদান করে বিলম্বিত কমিশন বিল তৈরি করতে হবে।

কমিশনসহ অন্য যে কোনো রকম ব্যয় যেমন বোনাস, যাতায়াত, বাড়িভাড়া ইত্যাদি সংগৃহীত প্রিমিয়ামের সঙ্গে সমন্বয় করা যাবে না। এজেন্ট এবং সব উন্নয়ন কর্মকর্তাকে মোবাইল ব্যাংকিং ও এজেন্ট ব্যাংকিংসহ ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে কমিশন পরিশোধ করতে হবে।

লাইফ বীমা কোম্পানিগুলোয় বিগত পাঁচ বছরের কম সময় ধরে যেসব পলিসি তামাদি হয়ে আছে, সেগুলোর কোনো বিলম্ব ফি ছাড়াই পুনর্বহালের সুযোগ দিতে ৭ জুলাই বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশন ‘মুজিববর্ষে বীমা কোম্পানির উপহার’ হিসেবে উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।

এই বিজ্ঞপ্তির আলোকে তামাদি পলিসি পুনর্বহাল এবং উল্লিখিত নির্দেশনাসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি জানতে আইডিআরএ লাইফ বীমা কোম্পানিগুলো থেকে নির্দিষ্ট ছকে ২০১৫ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত তামাদি পলিসির তথ্য সংগ্রহ করছে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।