দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা উপলক্ষে যেসব রাস্তা বন্ধ

প্রকাশিতঃ ১২:২২ অপরাহ্ণ, শনি, ১৮ জানুয়ারি ২০

সময় জার্নাল প্রতিবেদক : দুই পর্বের ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত আগামীকাল রোববার।

এ উপলক্ষে রোববার ভোর ৫টা থেকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের মহাখালী থেকে জয়দবেপুর চৌরাস্তা, মীরেরবাজার থেকে টঙ্গী ও আবদুল্লাহপুর থেকে বাইপাস সড়ক পর্যন্ত সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকবে।

শনিবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার আনোয়ার হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ইজতেমায় অংশ নেয়া কয়েক লাখ মুসল্লির ছাড়াও আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে ইচ্ছুক অসংখ্য মুসল্লির যাতায়াতের সুবিধার্থে ভোর ৫টা থেকে বিমান বন্দর- গাজীপুরের জয়দেবপুর, চৌরাস্তা, মিরেরবাজার-টঙ্গী, আবদুল্লাপুর থেকে বাইপাস সড়কে আশুলিয়ায় ব্যারিকেড দিয়ে ইজতেমাসংলগ্ন এলাকায় যান চলাচল বন্ধ রাখা হবে।

তিনি আরও বলেন, আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে এবং মোনাজাত শেষে মুসল্লিদের নির্বিঘ্নে ঘরে ফিরে যাওয়ার জন্য এই অংশে যানবাহন বন্ধ রাখার কোনো বিকল্প নেই। আখেরি মোনাজাত শেষে ইজতেমা ময়দান থেকে মুসল্লিরা বের হয়ে গেলে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করা হবে।

পুলিশ কমিশনার আরও বলেন, ইজতেমা শেষে যাওয়ার সময় একই ব্যবস্থাপনা অব্যাহত থাকবে।

এদিকে শনিবার সকালে ঘন কুয়াশা ও তীব্র শীত উপেক্ষা করে টঙ্গী ইজতেমা ময়দানে আগত মুসল্লিরা নিজ নিজ খিত্তায় অবস্থান করে ইবাদত-বন্দেগিতে মশগুল রয়েছেন।

শুক্রবার বাদ ফজর ভারতের মাওলানা চেরাগ আলীর আম-বয়ানের মধ্য দিয়ে টঙ্গীর তুরাগ তীরে শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। রোববার দুপুরে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের ইজতেমা।

শুক্রবার আনুষ্ঠানিকভাবে ইজতেমা শুরু হলেও বুধবার থেকেই শুরু হয়েছে বিশেষ বয়ান। মুসল্লিরাও ওইদিন থেকে আসতে শুরু করে কহর দরিয়ার তীরে। বৃহস্পতিবার ছিল টুপি পরা মানুষের ময়দানমুখী স্রোত।

গত ১০ জানুয়ারি শুরু হয়েছে এবারের তিন দিনের ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমা। রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে এ বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব।

আরইউটি/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ