নতুন উড়োজাহাজে ফ্লাইট পরিচালনা করছে ইউএস-বাংলা

প্রকাশিতঃ ৬:৩৪ অপরাহ্ণ, রবি, ২৬ মে ১৯

নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশের এভিয়েশনের ইতিহাসে বেসরকারি এয়ারলাইন্সের মধ্যে ইউএস-বাংলা’ই সর্বপ্রথম ব্রান্ড নিউ এয়ারক্রাফট দিয়ে অভ্যন্তরীণ গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

সম্প্রতি ইউএস-বাংলার বহরে যুক্ত হয়েছে নেক্সট জেনারেশন এয়ারক্রাফট এটিআর-৭২-৬০০। এটিআর সিরিজের এই মডেলের এয়ারক্রাফটিই সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে সমৃদ্ধ।

বর্তমানে এই মডেলের অত্যাধুনিক এয়ারক্রাফট এয়ার ইন্ডিয়া, ইন্ডিগো, মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্স,মালিন্দো এয়ার, লায়ন এয়ার ব্যবহার করে থাকে।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ব্রান্ড নিউ এয়ারক্রাফট দিয়ে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, যশোর, কক্সবাজার, সৈয়দপুর, রাজশাহী ও বরিশাল রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

ইউএস-বাংলার বহরে থাকা বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এবং ড্যাশ ৮-কিউ ৪০০ এয়ারক্রাফটের পাশাপাশি এটিআর ৭২-৬০০ ব্রান্ড নিউ মডেলের এয়ারক্রাফট যুক্ত হওয়ায় বর্তমানে ইউএস-বাংলাই দেশের বেসরকারী এয়ারলাইন্সের মধ্যে সর্ববৃহৎ এয়ারলাইন্স।

২০১৪ সালের ১৭ জুলাই দ্রুতগতি সম্পন্ন দু’টি ড্যাশ ৮-কিউ ৪০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ঢাকা থেকে যশোরে উদ্বোধনী ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে। ঢাকা থেকে দেশের ৭টি অভ্যন্তরীণ গন্তব্যে ইউএস-বাংলাই সর্বপ্রথম অধিক সংখ্যক ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করেছে।

বর্তমানে ইউএস-বাংলার বিমান বহরে ৪টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০, ৩টি ড্যাশ ৮-কিউ ৪০০ ও ২টি এটিআর ৭২-৬০০ মডেলের এয়ারক্রাফট চালু রয়েছে। আগামী জুন মাসে বহরে আরো ২টি এটিআর ৭২-৬০০ এয়ারক্রাফট যুক্ত হবে।

ইউএস-বাংলা বর্তমানে অভ্যন্তরীণ রুট ছাড়াও ঢাকা থেকে কলকাতা, চেন্নাই, সিঙ্গাপুর, কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, গুয়ানজু, মাস্কাট ও দোহায় নিয়মিত ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

সম্প্রতি এয়ারলাইন্স সেফটি রেটিংস সাইটে স্থান করে নিয়েছে ইউএস-বাংলা। আন্তর্জাতিক এয়ারলাইন্সগুলোর সেফটির বিষয় নিয়ে এই সাইট নিয়মিত তালিকা প্রকাশ করে থাকে। এই সাইটটি ফোর্বস ও সিএনএন কর্তৃক স্বীকৃত।

ঢা/এমএম

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ