নীলফামারীতে পুলিশ সুপারের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

প্রকাশিতঃ ৯:২০ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ২ এপ্রিল ২০

খাদেমুল মোরসালিন শাকীর, নীলফামারী প্রতিনিধি : নীলফামারী জেলা পুলিশ সারাদেশের ন্যায় মানুষের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে বাড়ীতে থাকা খেটে খাওয়া কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরণ করেন জেলা পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান বিপিএম, পিপিএম।

বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নীলফামারী জেলা পুলিশের সুপারের উদ্যোগে উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের খেটে খাওয়া প্রকৃত গরীব ও অসহায় ও কর্মহীন পরিবারকে চিহ্নিত করে তাদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। করোনা ভাইরাসের কারণে গোটা দেশের ন্যায় যখন খেটে খাওয়া মানুষ বাড়ীতে অবস্থান করছে, ঠিক সেই সময় নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার পুলিশের দক্ষ দল বাড়ী বাড়ী ঘুরে প্রকৃত গরীব মানুষের বাড়ী গিয়ে অসহায় পরিবারকে চিহ্নিত করে তাদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।

রাতের অন্ধকারে যে পুলিশ অপরাধীদের ধরতে কাজ করছে, সেই পুলিশ গরীব মানুষের পাশে খাবার নিয়ে হাজির হওয়ায় গরীব মানুষ খুশি হয়েছে। আবার অনেক গরীব মানুষ খাবার পেয়ে আনন্দে কেঁদে ফেলেন। পুলিশের কর্মকর্তাদের জন্য কাঁদতে কাঁদতে দোয়া করেন।

সাধারণ মানুষ অবাক হয়েছে পুলিশের এই রাতের বেলায় গরীব দুঃখী ও অসহায় কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য। অনেক সচেতন মানুষ পুলিশের প্রশংসা করে বলেন, পুলিশ যেমন অপরাধ দমনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন ঠিক তেমনি অসহায় মানুষের বিপদের পাশে থেকেও নিরলসভাবে কাজ করছেন।

বুধবার রাত সাড়ে ৯টার সময় জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নে নীলফামারী জেলা পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান এ বিতরণ কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবুল বাশার মো. আতিকুর রহমান, সহকারী পুলিশ সুপার (সেবা) অশোক কুমার পাল, কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এম হারুন অর রশিদ, ওসি তদন্ত মফিজুল হক, এস আই আব্দুল আজিজ, কিশোরগঞ্জ দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী গ্রেনেট বাবুসহ থানার সকল অফিসার ও প্রেস ক্লাবের যুগ্ম আহবায়ক খাদেমুল মোরসালিন শাকীর।

পুটিমারী ইউনিয়নের জমিলা বেগম বলেন, বাবা হামরা গরীব মানুষ হামার খবর কায়ো রাখে না। আইজ পুলিশ মোর বাড়ীত আসিয়া মোর বাড়ী দেখিয়া মোক খাবার দিয়া গেল। আল্লাহ সউক পুলিশের উপর রহমত দিবে।

নীলফামারী জেলা পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান বলেন, পুলিশকে মানুষ ভয় করবে না। বরং পুলিশকে বন্ধু ভেবে তাদের এলাকার সমস্যা সমাধানের জন্য পুলিশকে সহায়তা করতে হবে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ