পরীক্ষায় জালিয়াতি : সাংসদ বুবলীকে দল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত

প্রকাশিতঃ ৮:১১ পূর্বাহ্ণ, শনি, ২৩ নভেম্বর ১৯

নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক ও সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য তামান্না নুসরাত বুবলীকে দল থেকে বহিষ্কারের নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে। উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে বিএ পরীক্ষায় জালিয়াতির ঘটনার প্রেক্ষিতে শুক্রবার বিকেলে নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সদর আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শুক্রবার বিকেলে মনোহরদী উপজেলার গোতাশিয়া গ্রামে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুনের বাসভবনে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএ পরীক্ষায় সংসদ সদস্য তামান্না নুসরাত বুবলীর হয়ে পরীক্ষায় অংশ নেন অন্য একজন। সম্প্রতি জালিয়াতির এ ঘটনা ধরা পড়ার পর তার সব পরীক্ষাসহ ছাত্রত্ব বাতিল করে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

একজন দলীয় সংসদ সদস্য হয়ে এমন অপরাধে অংশ নেওয়ায় দেশ, দল এবং সংসদের মান ক্ষুণ্ণ হওয়ায় তাকে দল থেকে বহিষ্কারের নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. নজরুল ইসলাম এমপি।
তিনি জানান, এ সিদ্ধান্তের বিষয়টি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে লিখিত আকারে পাঠানো হচ্ছে।

এ ব্যাপারে সংসদ সদস্য তামান্না নুসরাত বুবলী বলেন, ‘শুক্রবার জেলা আওয়ামী লীগের কোনো মিটিং হয়েছে কি-না সেটা আমার জানা নেই। কমিটির পদে থাকা সত্ত্বেও আমাকে মিটিংয়ের কোনো চিঠি বা ফোনও দেওয়া হয়নি। মিটিংয়ে কী সিদ্ধান্ত হয়েছে সেটাও জানি না। যতদূর জানি, কাউকে বহিষ্কার করার আগে নোটিশ বা আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেওয়া হয়। আর মিটিংও নাকি জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে না হয়ে একটি উপজেলায় বসে করা হয়েছে বলে শুনেছি। এসব আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ বলেই মনে করছি।’

উল্লেখ্য সংসদ সদস্য তামান্না নুসরাত বুবলী নরসিংদীর প্রয়াত মেয়র লোকমান হোসেনের স্ত্রী ও বর্তমান মেয়র কামরুজ্জামানের ভাবি।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ