পাপুলের কুকর্মের সহযোগী কুয়েতি জেনারেল আটক

প্রকাশিতঃ ৪:১৭ অপরাহ্ণ, শনি, ১১ জুলাই ২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মানবপাচার ও মানি লন্ডারিংয়ের দায়ে কুয়েতের কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি বাংলাদেশি এমপি কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের কুকর্মের সহযোগী দেশটির বহুল আলোচিত মেজর জেনারেলকে আটকের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। কুয়েতের প্রতিষ্ঠিত আরবি দৈনিক আল-কাবাস জানিয়েছে, শুক্রবার পাবলিক প্রসিকিউশন মেজর জেনারেল শেখ মাজান আল-জারাহকে গ্রেপ্তার করে আদালতে হাজির করার আদেশ দিয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে, ইতোমধ্যে সেই আদেশ তামিল বা কার্যকর হয়ে গেছে।

উল্লেখ একদিন আগেই (শুক্রবার সকালে) এ সংক্রান্ত রিপোর্টে আল-কাবাস (পাপুলকাণ্ড নিয়ে ধারাবাহিকভাবে ফেব্রুয়ারি মাস থেকে রিপোর্ট প্রচার করছে ) জেনারেলকে আটকের আদেশ আসছে মর্মে ইঙ্গিত দিয়েছিলো।

শুক্রবার রাতের রিপোর্টে বলা হয়, “আল-কাবাস “এর ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে যে, পাবলিক প্রসিকিউশন তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতে হাজির করার আদেশ জারি করেছেন। জেনারেল মাজান আল জারাহ যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ছিলেন, তিনি যাদের ওপর এতোদিন ছড়ি ঘুরিয়েছেন সেই মন্ত্রণালয়ের টিমের ওপর দায়িত্ব পড়েছে তাকে ধরার এবং জিজ্ঞাসাবাদের। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা শিগগিরই তাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব বা আদেশ বাস্তবায়ন করছেন। সূত্র আল-কাবাসকে জানিয়েছে যে, বাঙালি ডেপুটি পাপুলের ক্ষেত্রে বিবাদী হিসাবে অর্থাৎ পাপুলের কুকর্ম ঢাকতে দায়িত্ব নিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে থাকা প্রভাবশালী ওই জেনারেল।

বর্তমানে বহিস্কৃত জেনারেল এর বিনিময়ে আগাম বড় অংকের ঘুষ নিয়েছেন। ঘুষ গ্রহণের সেই তথ্য প্রমাণ পাওয়ার পর জেনারেলের বিরুদ্ধে অ্যাকশন শুরু করে পাবলিক প্রসিকিউশন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।