পোশাক কারখানায় ছাঁটাই বন্ধে প্রধানমন্ত্রীকে এএএফএ’র চিঠি

প্রকাশিতঃ ৮:৩৩ অপরাহ্ণ, শনি, ২৫ মে ১৯

নিউজ ডেস্ক : পোশাক কারখানায় ছাঁটাই বন্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চিঠি দিয়েছেআমেরিকান অ্যাপারেল অ্যান্ড ফুটওয়ার অ্যাসোসিয়েশন (এএএফএ) । একইসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের পোশাক ও পাদুকা খাতের প্রভাবশালী এই সংগঠন বাংলাদেশে শ্রমিক নেতাদের বিরুদ্ধে আনা সব ধরনের অপরাধের অভিযোগ ও দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের আহ্বান জানায়।

শুক্রবার (২৪ মে) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ করে লেখা চিঠিতে এসব আহ্বান জানান এএএফএ’র সিইও রিক হেলফেনবেইন। একইসঙ্গে এ ধরনের অভিযোগে সেসব কর্মীকে বিভিন্ন পোশাক কারখানা থেকে ছাঁটাই করা হয়েছে তাদের পুনর্বহালে উদ্যোগ নেওয়ার জন্যও আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে লেখা ওই চিঠিতে গার্মেন্ট, ফুটওয়ার ও ভ্রমণ পণ্য খাতে কর্মরত ৪০ লাখেরও বেশি শ্রমিকের জীবনমান উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকারের অঙ্গীকারের প্রশংসা করেছে এএএএফএ। তবে একইসঙ্গে এসব শ্রমিক বর্তমানে ছাঁটাইসহ যে ধরনের হয়রানির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে তাতে ভবিষ্যতে শ্রমিক অসন্তোষ সৃষ্টি হতে পারে বলে সরকারকে হুঁশিয়ারি করে দিয়েছে।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, বাংলাদেশে পোশাক শিল্পের সম্ভাবনা অফুরন্ত। তবে এ বছরের শুরুতে পোশাক শ্রমিকদের সর্বনিম্ন মজুরি দাবির বিক্ষোভের পর এ বিষয়ে সরকারের প্রতিক্রিয়া ও প্রতিশ্রুতি দেওয়ার ধরন পোশাক শ্রমিকদের নিরাপত্তাকে উদ্বেগের মুখে ঠেলে দিয়েছে।

চিঠিতে দাবি করা হয়, শ্রমিকদের দাবির মুখে বাংলাদেশ সরকার খুব দ্রুত সাড়া দিয়ে নতুন মজুরি কাঠামোর ত্রুটি-বিচ্যুতি সংশোধনের যে উদ্যোগ নিয়েছিল তা অত্যন্ত সাধুবাদযোগ্য। তবে মুদ্রার অপর পিঠে এই এই বিক্ষোভে অংশ নেওয়ায় কর্মীদের ওপর ভীষণ রুষ্ট হয় সরকার ও পোশাক কারখানার মালিকরা। ফলে বিক্ষোভে অংশ নেওয়াদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসেবে বিভিন্ন রকম হয়রানিমূলক মামলা দায়ের এবং অনেককেই কাজ থেকে ছাঁটাই করে দেওয়া হয়।

চিঠিতে দাবি করা হয়, গণহারে এভাবে শ্রমিকদের ছাঁটাই এবং তাদের বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলা ও অভিযোগ আনা অবশ্যই বন্ধ করতে হবে।

প্রসঙ্গত, এএএফএ হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের পোশাক, ফুটওয়্যার এবং অন্যান্য সেলাইজাত পণ্য উৎপাদনকারী কোম্পানি ও তাদের সরবরাহকারীদের জাতীয় বাণিজ্য সংস্থা, বিশ্ববাজারে যার বিপুল প্রভাব রয়েছে। এক হাজারেরও বেশি গ্লোবাল ব্র্যান্ডের প্রতিনিধিত্বকারী এই সংগঠনটি যুক্তরাষ্ট্রের চল্লিশ লাখেরও বেশি শ্রমিকদের পক্ষে রাজনৈতিক বক্তব্য রেখে আসছে।

সজা/এমএম

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ