বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসছে সর্বনাশা পঙ্গপাল

প্রকাশিতঃ ৯:৩০ পূর্বাহ্ণ, সোম, ২৭ এপ্রিল ২০

করোনাভাইরাসের হামলার মধ্যেই সর্বনাশা পঙ্গপালের আক্রমনের আশংকা দেখা দিয়েছে ভারতীয় উপমহাদেশে।এই পঙ্গপাল ফসলের মাঠ উজাড় করে দেয়। ফলে যেখানে এরা হানা দেয় সেখানেই খাদ্য সংকট সৃষ্টি হয়।

ইতোমধ্যেই আফ্রিকা মহাদেশের কৃষিজমিতে তাণ্ডব চালিয়েছে। এবার দক্ষিণ এশিয়ার ভারত ও বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসছে পঙ্গপালের দু’টি ঝাঁক। এমন তথ্যই দিয়েছে বিশ্ব খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও)

চলতি বছরের মে থেকে ভারতে পঙ্গপালের উপদ্রব শুরু হবে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছিল বিশ্ব খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও)। তবে সেখানে বাংলাদেশের কথা উল্লেখ ছিল না। এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইতিমধ্যেই পঙ্গপালের একটি ঝাঁক ভারতে প্রবেশ করেছে। এছাড়া আরেকটি দল এ অঞ্চলের কৃষিজমিতে সরাসরি হানা দিতে ভারত মহাসাগর পাড়ি দিচ্ছে।

করোনাভাইরাসের প্রকোপে বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলের মত দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোও রয়েছে সংকটে। এ সময়ে পঙ্গপালের এমন আক্রমণ ঠেকাতে ‘দুই ফ্রন্টে’ যুদ্ধের প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করেছে ভারত। সূত্রের খবর, দুই ফ্রন্টের যুদ্ধে করোনাভাইরাস মহামারি ও পঙ্গপাল উভয় দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারত সরকার। ভারতের একটি সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে দ্য হিন্দু জানায়, হর্ন অব আফ্রিকা থেকে একঝাক পঙ্গপাল মরু অঞ্চলের আরেকদল পঙ্গপালের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। এসব ঝাঁক মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইয়েমেন, বাহরাইন, কুয়েত, কাতার, ইরান, সৌদি আরব ও পাকিস্তান হয়ে ভারতেও হানা দিচ্ছে। ইতিমধ্যে ভারতের পাঞ্জাব ও হারিয়ানা রাজ্যে ঢুকে পড়েছে একদল। এদিকে পঙ্গপালের আরও একটি দল ভারত মহাসাগর পাড়ি দিচ্ছে। ভারতের কৃষিজমিতে ক্ষতি করার পর এ দলটি বাংলাদেশের দিকে ফিরতে পারে। পঙ্গপালের এ দুই দল মিলে এ অঞ্চলে ফসলের মারাত্মক ক্ষতিসাধন করতে পারে। এতে খাদ্য নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়বে।

উল্লেখ্য, এর আগে এবার আফ্রিকায় ব্যাপক ক্ষতি সাধন করেছে পঙ্গপালের এসব দল। পঙ্গপালের উৎপাতে ইতিমধ্যে মহাদেশটিতে খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে। গত ২১ এপ্রিল জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) এক সতর্কবার্তায় জানানো হয়, বিশ্বে কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে বড় পঙ্গপালের উৎপাতের ঘটনা ঘটতে পারে এ বছর। পঙ্গপালের উৎপাত মোকাবিলায় এফএও জরুরি তহবিল গঠনের আহ্বান জানিয়েছে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ