বাগেরহাটে হরিণ শিকারিদের তৎপরতা বৃদ্ধি, ১০কেজি মাংস উদ্ধার

প্রকাশিতঃ ৯:১৯ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ২৩ এপ্রিল ২০

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট : প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের মধ্যে হরিণ শিকারিদের হঠাৎ তৎপরতা বাড়ছে। শিকারি চক্র থেমে নেই।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বাগেরহাটের শরণখোলার সোনাতলা গ্রাম থেকে উদ্ধার হয়েছে ১০ কেজি হরিণের মাংস। পাচারকালে বনরক্ষীদের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরা শিকারিরা ককশিট ভর্তি মাংস ফেলে পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক করা যায়নি। বুধবার থেকে পূর্ব সুন্দরবনে রেড এলার্ট জারি করে বনবিভাগ।

এ চক্রের কারনে বনবিভাগের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুঁটিও বাতিল করা হয়েছে। রেড এলার্টের মধ্যে চলছে তাদের সকল কার্যক্রমে।

শরণখোলা ষ্টেশন কর্মকর্তা (এসও)মো. শামসুল হক জানান, একটি সংঘবদ্ধ চক্র হরিণের মাংস পাচার করছে এমন খবর পেয়ে দুপুরে তিনি বনরক্ষীদের নিয়ে বনসংলগ্ন সোনাতলা গ্রামে অভিযান চালান। এ সময় চোরা শিকারিরা বনরক্ষীদের উপস্থিতি টের পেয়ে ককশিটে ভরা মাংস জাহাঙ্গীর হোসেনের বাড়িসংলগ্ন মাঠের একটি খাদের মধ্যে ফেলে পালিয়ে যায়।

শরণখোলা রেঞ্জ কর্মকর্তা (এসিএফ) জয়নাল আবেদীন জানান, এ ব্যাপারে বন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। জব্দ করা মাংস আদালতের অনুমতি নিয়ে বিকেলে রেঞ্জ অফিস চত্বরে মাটিচাপা দেওয়া হয়েছে।

 

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ