বাসে আগুনের ঘটনায় ৭ মামলা, গ্রেফতার ১২

প্রকাশিতঃ ১:৫১ অপরাহ্ণ, শুক্র, ১৩ নভেম্বর ২০

রাজধানীতে বাসে অগ্নিসংযোগ ও নাশকতার ঘটনায় পল্টন, শাহবাগ, ভাটারা ও মতিঝিল থানায় সাতটি মামলা হয়েছে। পুলিশ বাদী হয়ে এসব মামলা করেছে। এসব মামলায় অন্তত ১২ জনকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গণমাধ্যম ও গণসংযোগ শাখার উপকমিশনার (ডিসি) ওয়ালিদ হোসেন গণমাধ্যমকে পল্টন, শাহবাগ ও মতিঝিল থানায় ছয়টি মামলার বিষয় নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বিস্ফোরক ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে এসব মামলা হয়েছে।

এ ছাড়া ভাটারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোক্তারুজ্জামান বলেন, বাস পোড়ানোর ঘটনায় তাঁর থানায়ও একটি মামলা হয়েছে। ৯০ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত অনেককে আসামি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ৯-১০টি বাসে অগ্নিসংযোগ করে দুর্বৃত্তরা। তবে এসব ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।

এরপর রাতে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মতিঝিল জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) জাহিদুল ইসলাম জাহিদ জানান, মতিঝিল ও পল্টন মডেল থানার চারটি মামলায় ছয়-সাতজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

অপরদিকে আজ সকালে শাহবাগ থানার ওসি মামুন অর রশিদ বলেন, ‘এখানে দুটি মামলায় ছয়জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।‘

কলাবাগানে আরেকটি মামলা

এ ছাড়া রাতে রাজধানীর পান্থপথের বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্স এলাকার মশাল মিছিল থেকে ছাত্রদলের দুই নেতাকর্মীকে আটক করে কলাবাগান থানা পুলিশ।

কলাবাগান থানার ওসি পরিতোষ চন্দ্র দুপুরে বলেন, পুলিশের ওপর হামলা ও কাজে বাধাদানের অভিযোগ এনে একটি মামলা হয়েছে। সেই মামলায় দুজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে গতকাল রাতে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদুর রহমান দাবি করেছিলেন, ‘বসুন্ধরার উল্টা দিকে সন্ধ্যার পর একটি মশাল মিছিল যাচ্ছিল। সে সময় পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়ার চেষ্টা করলে তারা পুলিশের ওপর হামলা ও নাশকতা করার চেষ্টা করে। সে সময় পুলিশ দুজন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করে।’

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এসব মামলার আসামিদের আজ আদালতে পাঠানো হবে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।