বিএনপি এখন মানসিকভাবে বিপন্ন : কাদের

প্রকাশিতঃ ৬:৩৪ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ২৩ জুলাই ২০

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি এখন মানসিকভাবে বিপন্ন। তারা নিজেরাই জনরোষের ভয়ে আতঙ্কে আছে। মানুষ বিএনপির কর্মহীন, প্রত্যাশাহীন, বাক্যবাণের আতঙ্কে আছে। তারা জনগণকে সাহস না দিয়ে জনমনে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। বিএনপি বেপরোয়া চালকের মতো রাজনীতিতেও বেপরোয়া আচরণ করছে।’

জাতীয় স্বার্থে বিরোধী দল সরকারের গঠনমূলক সমালোচনা করবে এবং ভুল শোধরে দেবে- এমনটাই প্রত্যাশা করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘গঠনমূলক যেকোনো সমালোচনাকে সরকার স্বাগত জানায়।’

বৃহস্পতিবার সকালে নিজের বাসা থেকে বনানীতে একটি অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমের যুক্ত হয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এসব কথা বলেন। ওয়েস্টার্ন বাংলাদেশ ব্রিজ ইমপ্রুভমেন্ট প্রজেক্টের আওতায় জাইকার ঋণ সহায়তায় চলমান দুটি প্যাকেজের মাধ্যমে দেশের উত্তরাঞ্চলে আটটি সেতু ও দক্ষিণাঞ্চলে ১৩টি সেতু নির্মাণের লক্ষ্যে চুক্তি স্বাক্ষর উপলক্ষে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়।

এ সময় সেতুমন্ত্রী জাইকাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, তাদের ঋণ সহায়তায় দেশের পূর্বাঞ্চলে মোট ১১৮টি নতুন সেতুসহ কাঁচপুর, মেঘনা ও গোমতী সেতুর নির্মাণকাজ এরমধ্যেই সমাপ্ত হয়েছে।

‘এ প্রকল্পের আওতায় এরমধ্যে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ২৫টি সেতুর নির্মাণকাজ সমাপ্ত হয়েছে। এ ছাড়া উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে চলমান ৩৫টি সেতুর নির্মাণকাজের অগ্রগতি প্রায় ৮০ ভাগ। এ ছাড়া মেট্রোরেল প্রকল্প রুট-৬ এর নির্মাণকাজের সর্বশেষ অগ্রগতি ৪৭ ভাগ। স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন করে মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজ এগিয়ে চলছে’, যোগ করেন সেতুমন্ত্রী।

এর আগে দুটি প্রকল্পের চুক্তি স্বাক্ষর করেন জাইকার প্রতিনিধি ও বাংলাদেশের পক্ষে প্রকল্প পরিচালক আবদুস সবুর।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী কাজী শাহরিয়ার হোসেন এবং ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যুক্ত হন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাইকো ও জাইকার প্রধান প্রতিনিধি উহো হায়াকাওয়া।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।