বিদেশি বিনিয়োগকারীদের বেশি সুবিধা দিচ্ছি: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ ১:০২ অপরাহ্ণ, বুধ, ৩০ অক্টোবর ১৯

নিউজ ডেস্ক: চামড়াজাত পণ্য প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যেকোনও দেশের চাইতে বাংলাদেশে বিনিয়োগ করলে বেশি লাভবান হবেন। কারণ বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আমরা বেশি সুবিধা দিচ্ছি, যা অন্য কোনও দেশ দিতে পারবে না।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চামড়াজাত পণ্য প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। বুধবার (৩০ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রী এর উদ্বোধন করেন। ৩১ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে এই প্রদর্শনী।

শেখ হাসিনা বলেন, দেশে ১২টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রস্তুত করা হয়েছে। এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলে আমরা দেশি ও বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জায়গা করে দিতে চাই। দেশের মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে, কৃষি জমি সুরক্ষা এবং শিল্পায়নের জন্যই বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরি করা হয়েছে। এর কার্যক্রম পূর্ণাঙ্গভাবে শুরু হলে আমাদের প্রবৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবে।

তিনি বলেন, রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে আরও অন্তত ৫ বছর আর্থিক প্রণোদনা অব্যাহত থাকবে। এছাড়া বৈষম্যমূলক প্রতিবন্ধকতা দূর করা হবে। ব্যবসায়ীদের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে। বাংলাদেশ এখন সারা বিশ্বে উন্নয়নের বিস্ময়। সবাই আমার কাছে জানতে চায়, এত অল্প সময়ের মধ্যে কীভাবে আমরা এই উন্নয়নটা করলাম?

অনুষ্ঠানে তিনি আরও বলেন, চামড়া খাতকে অগ্রাধিকার খাত হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে। রফতানি আয়ের দিক দিয়ে চামড়াজাত পণ্যের অবস্থান দ্বিতীয়। তৈরি পোশাকের পরেই এর অবস্থান। এজন্য এ শিল্পের উন্নয়নে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। গত ১০ বছরে চামড়া ও পাদুকা শিল্পের উন্নয়নে কাজ করা হয়েছে। হাজারীবাগ থেকে ট্যানারি সরিয়ে সাভারে নেওয়া হয়েছে। যাতে করে আধুনিক ও স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশে শ্রমিকরা কাজ করতে পারেন।

ফিউচার প্রুফ সোর্সিং এই থিম্যাটিক ট্যাগলাইনে এবারের প্রদর্শনীতে ৩০টির বেশি দেশের ক্রেতা ও ব্র্যান্ড প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন। থাকবে ১০টি প্যাভিলিয়ন ও ৩০টি স্ট্যান্ডস। যেখানে বিদেশি ক্রেতাদের আকর্ষণে বাংলাদেশে তৈরি করা নানা ধরনের চামড়া ও চামড়াজাতীয় পণ্য প্রদর্শন করা হবে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ