বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৩ লাখ

প্রকাশিতঃ ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ, মঙ্গল, ২৬ মে ২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারীতে বিশ্বব্যাপী মারা গেছে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ মানুষ। আর আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৫৫ লাখ।

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৪ লাখ ৯৪ হাজার ২৮৭ জনে। আর মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৪৬ হাজার ২২৯ জনের। ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২২ লাখ ৩১ হাজার ৭৩৮ জন।

বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে, ৯৮ হাজার ২২০ জন। দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যাও বিশ্বে সর্বোচ্চ, ১৬ লাখ ৬২ হাজার ৩০২ জন।

মৃতের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের পরেই উঠে এসেছে যুক্তরাজ্য। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ৩৬ হাজার ৯৯৬ জন। আক্রান্ত হয়েছে ২ লাখ ৬২ হাজার ৫৪৭ জন।

আর আক্রান্তের সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে ব্রাজিল। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৩ লাখ ৭৪ হাজার ৮৯৮ জন। আর মারা গেছে ২৩ হাজার ৪৭৩ জন।

করোনায় মৃত্যুর দিক দিয়ে যুক্তরাজ্যের পরের অবস্থানে আছে ইতালি। দেশটিতে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৩২ হাজার ৮৭৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৩০ হাজার ১৫৮ জন। মৃত্যুতে চতুর্থ অবস্থানে থাকা স্পেনে মারা গেছে ২৬ হাজার ৮৩৪ জন ও আক্রান্ত ২ লাখ ৩৫ হাজার ৪০০ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশে সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫ হাজার ৫৮৫ জন এবং মোট মৃতের সংখ্যা ৫০১ জন।

গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় এবং ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১৮৮টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।