ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে হামলা

প্রকাশিতঃ ৮:২৪ অপরাহ্ণ, সোম, ১৬ ডিসেম্বর ১৯

নিউজ ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পরিষদের বিজয় দিবসের আলোচনা সভা ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের প্রাক্কালে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। একদল দুর্বৃত্ত ওই হামলা চালায়। এ সময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙচুর করা হয়।

সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল ৯টার দিকে জেলা পরিষদ ভবন চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। অনুষ্ঠান শুরুর আগে খালি প্যান্ডেলে এ ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। তবে হামলার পর বিক্ষোভ করেন মুক্তিযোদ্ধারা।

বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পরিষদের আয়োজনে আলোচনা সভা ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানটি শুরু হওয়ার কথা ছিল সকাল ১১টায়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ শফিকুল আলম। সকাল ৯টার দিকে একদল লোক অনুষ্ঠানস্থলে গিয়ে মঞ্চ এবং বসার চেয়ার ভাংচুর করে। সিসিটিভি ভিডিওতে দেখা যায়, হামলাকারীদের মুখ ছিল কাপড়ে ঢাকা।

পরে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী নোয়াব আসলাম হাবীবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠান শেষে ১২২ জন মুক্তিযোদ্ধাকে একটি করে চাদর, একটি ব্যাগ এবং সম্মাননা স্মারক দেওয়া হয়।

হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শফিকুল আলম ও মুক্তিযোদ্ধারা।

শফিকুল আলম বলেন, ‘যারা বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি গুঁড়িয়ে দিয়েছে তারা প্রকৃত রাজাকার। প্রশাসনের কাছে আমাদের দাবি থাকবে, যারা এ হামলা চালিয়েছে তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হোক। আমরা জেলা পরিষদের পক্ষ থেকেও আইনগত ব্যবস্থা নেব।’

জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী নোয়াব আসলাম হাবীব বলেন, ‘এটা সন্ত্রাসী হামলা। তারা জাতির জনক ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর করেছে। তারা ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করেছে। জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ