ভর্তির সুযোগ চেয়ে চবির মেধা তালিকার শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

প্রকাশিতঃ ৯:০৬ অপরাহ্ণ, সোম, ৪ নভেম্বর ১৯

চবি প্রতিনিধিঃ উচ্চ মাধ্যমিকে মানোন্নয়ন দিয়ে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় মেধা তালিকায় স্থান পাওয়া শিক্ষার্থীরা ভর্তির সুযোগ দেওয়ার দাবিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) মানববন্ধন করেছে। এনিয়ে প্রক্টরের মাধ্যমে উপাচার্য বরাবর দরখাস্তও দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

সোমবার (০৪ সেপ্টেম্বর) শতাধিক শিক্ষার্থী এই দাবি নিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন করেছে। সকাল সাড়ে নয়টা থেকে তারা এই মানববন্ধন শুরু করে।

মানববনন্ধেন রত শিক্ষার্থীদের হাতে ভিবিন্ন শ্লোগান, হয় ভর্তি নিন না হয় বিষ দিন’, ‘কাঁদতে আসিনি যোগ্যতা নিয়ে ভর্তি হতে এসেছি’, ‘গত বছরের যোগ্যরা এবার মানোন্নয়ন দিলে ভর্তি পরীক্ষা দিতে পারবে না সার্কুলারে উল্লেখ নাই’, ‘ভুল আইসিটি সেলে আমাদের ভবিষ্যৎ নষ্ট কেন?’, ‘আমাদের মেধা, পরিশ্রম, সময়, টাকার কেন মূল্য নেই? “চবিতে হয় পড়ব না হয় মরব’ লেখা সংবলিত প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করে।

চট্টগ্রামের বাঁশখালী থেকে আগত শিক্ষার্থী ইয়াসিন সময় জার্নালকে বলেন, আমাদেরকে আবেদনের সুযোগ দিয়েছে, মেধা তালিকায় স্থান পেয়েছি, কিন্তু তারপরেও ভর্তি না নিলে আমাদের মরণ ছাড়া উপায় নেই”।

কুমিল্লা থেকে আগত মেহেদী কাঁন্না বিজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমাদের প্রতি এ কেমন অবিচার? আমরা এখন কোথায় যাবো? হয় ভর্তি নিন অথবা আমাদের একবছর ফিরিয়ে দিন।

এদিকে খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে উপস্থিত হন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর প্রণব মিত্র। তিনি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের আগামীকাল ও পরশুর মধ্যে ২০১৮ এবং ২০১৯ সালের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার মার্কশিটের ফটোকপি, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ডের ফটোকপি একটি দরখাস্তসহ প্রক্টর অফিসে জমা দিতে বলেন।

উল্লেখ্য, গত ৩ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে অস্পষ্টতার জেরে আবেদন করলেও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের অযোগ্য হিসেবে বিবেচিত করায় ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাচ্ছে না এই শিক্ষার্থীরা। যদিও তাদের আবেদন গ্রহণ করে প্রবেশ পত্র ও ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ দেয় বিশ্ববিদ্যালয়।

সময় জার্নাল/ এম. শামছুল আলম

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ