মজলুমকে সাহায্য করা : ইসলাম কি বলে

প্রকাশিতঃ ১০:০৫ পূর্বাহ্ণ, শুক্র, ২৮ আগস্ট ২০

ড. ইয়াদ আল কুনাইবী :

পাশের বাসায় ডাকাত পড়েছে। অপ্রস্তুত অবস্থায় বাড়ির পুরুষরা চেষ্টা করছে যা আছে তাই দিয়ে ডাকাতদলের মোকাবেলার। শিশুরা পালিয়ে এসে কড়া নাড়ছে আমার দরজায়।

কিন্তু আমি দরজা খুললাম না।

অথবা খুললাম তবে অল্প করে। সেটাও আবার বেশ কিছু নারীশিশুর ধর্ষণ আর হত্যা শেষে পুরুষদের রাস্তায় টেনে বের করে আনার পর।

এমন অবস্থায় আমাকে কি দোষ দেয়া যায়?

আমি কি আত্মপক্ষ সমর্থনে বলতে পারি :

‘আমার ঘর, আমার নিয়ম। আমার যখন ইচ্ছে দরজা খুলব, যখন ইচ্ছে বন্ধ করব। কারও অধিকার নেই আমাকে বাধ্য করার।’

অথবা, ‘এটা ওদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এসব নিয়ে আমার কেন মাথাব্যথা?’

আজকাল অনেক মানুষ তো এমন কথাই বলে, তাই না? পথে-ঘাটে-অফিসে-অনলাইনে নিয়মিত এ ধরনের কথা আমরা শুনি।

আচ্ছা, আল্লাহ ‘আযযা ওয়া জাল কি বলেননি?
وَإِنِ اسْتَنصَرُوكُمْ فِي الدِّينِ فَعَلَيْكُمُ النَّصْرُ

আর যদি তারা দীনের ব্যাপারে তোমাদের নিকট কোনো সহযোগিতা চায়, তাহলে সাহায্য করা তোমাদের কর্তব্য।
[তরজমা, আল-আনফাল, ৭২]

তিনি সুব’হানাহু ওয়া তা’আলা কি বলেননি?
وَإِنَّ هَـٰذِهِ أُمَّتُكُمْ أُمَّةً وَاحِدَةً وَأَنَا رَبُّكُمْ فَاتَّقُونِ
তোমাদের এসব উম্মাত তো একই উম্মাত (যারা একই দ্বীনের অনুসরণ করে), আর আমিই তোমাদের প্রতিপালক, কাজেই আমাকেই ভয় করো।
[তরজমা, সূরা আল-মু’মিনুন, ৫২]

নবী সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম কি বলেননি,
ما من امرئٍ مُسلمٍ يخذُلُ امرأً مسلمًا في موضعٍ تُنتَهكُ فيه حرمتُه، ويُنتقَصُ فيه من عِرضِه إلّا خذله اللهُ في موطنٍ يُحِبُّ فيه نُصرتَه
“যে মুসলিম অপর কোনো মুসলিমের সম্মানহানি করা হলে কিংবা মর্যাদা ভূলুণ্ঠিত করা হলে তার সাহায্যে এগিয়ে আসে না, আল্লাহও তাকে এমন জায়গায় সাহায্য করবেন না, যেখানে সে আল্লাহর সাহায্য চায়।”
[সুনান আবু দাউদ, ৪৮৮৪; মুসনাদ আহমাদ, ১৬৩৬৮]

এগুলো কোনো অভিযোগ না। শুধুই প্রশ্ন।

এ প্রশ্নগুলোর উত্তর যারা এখনো খুঁজে পাচ্ছেন না, কাল তারা উত্তরগুলো ঠেকে শিখবেন। উত্তরগুলো তখন জেনে নিতে হবে রক্তের দাম দিয়ে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।