মির্জাপুর পৌর মেয়রের পরলোকগমন

প্রকাশিতঃ ১:৪১ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০

নিউজ ডেস্ক: টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সাহাদৎ হোসেন সুমন মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৬টায় ঢাকার বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

তার বয়স হয়েছিলো ৪৮ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

পারিবারিক সূত্র জানায়, মেয়র সাহাদৎ হোসেন সুমন অসুস্থতা নিয়ে রবিবার ঢাকার ল্যাবএইড হাসপাতাল এবং পরে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি হন।

সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৬টায় তিনি মারা যান। তার মৃত্যুতে মির্জাপুরে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

বুধবার বাদ জোহর মির্জাপুরে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে বলে জানা গেছে।

সাহাদৎ হোসেন সুমন স্কুল জীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

১৯৯৪ সালে তিনি ছাত্রলীগ থেকে মনোনয়ন পেয়ে মির্জাপুর কলেজছাত্র সংসদের ভিপি নির্বাচিত হন। ১৯৯৯ সাল থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত তিনি মির্জাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। এরপরই তিনি আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন।

রাজনীতির পাশাপাশি তিনি সামাজিক সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডসহ সাংবাদিকতার সঙ্গেও যুক্ত হন। দৈনিক মানব জমিন পত্রিকায় মির্জাপুর প্রতিনিধি হিসেবে সুনামের সঙ্গে কাজ করেন। ২০০০ সালে তিনি মির্জাপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এবং ২০০৫ সালে সভাপতি নির্বাচিত হন।

সাহাদৎ হোসেন সুমন ২০১৫ সালে ৩০ ডিসেম্বর নৌকা প্রতীক নিয়ে মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হন।

তার মৃত্যুতে টাঙ্গাইল জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাবেক এমপি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুক, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি একাব্বর হোসেন এমপি প্রমুখ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ