মুকসুদপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশিতঃ ৭:২৭ অপরাহ্ণ, শুক্র, ৪ সেপ্টেম্বর ২০

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : জেলার মুকসুদপুরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থী এখন পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে জানিয়েছেন তার মা সনেকা বৈরাগী (৪৫)। জেলার মুকসুদপুর উপজেলার ফুলকুমারী গ্রামে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী জানায়, বানিয়ারচর সূর্য্যকান্ত জানকী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এ বছর এসএসসি পরীক্ষা অংশ নেয়ার কথা রয়েছে। এক বছর আগে তার এক বান্ধবীর মাধ্যমে পার্শ্ববর্তী বানিয়ারচর গ্রামের বিকাশ বৈরাগীর ছেলে ঢাকায় একটি সিগারেট কোম্পানীতে চাকরিরত সৌরভ বৈরাগীর (২৪) সাথে তার পরিচয় হয়। পরে সৌরভ বৈরাগী তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমের প্রস্তাব দেয়।

প্রথমে সৌরভের প্রস্তাব অস্বীকার করলেও পরে বান্ধবীর অনুরোধে সে তাতে রাজি হয়। এক পর্যায় তারা ঘনিষ্ট হয়ে পড়েন। এ সুযোগে তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এতে সে পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এরপর সে বিয়ে করার জন্য চাপ দিলে সৌরভ নানান তালবাহানা শুরু করে। সৌরভের স্ত্রী হিসেবে এখন সামাজিক স্বীকৃতি চায় ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী। অন্যথায় আত্মহত্যা করা ছাড়া তার কোন উপায় থাকবে না।

ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী পিতা নামকীর্তন শিল্পী বিপুল বৈরাগী বলেন, এ ঘটনায় সামাজিকভাবে আমার পরিবার চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। আমার মেয়ের পড়ালেখা বন্ধ হয়ে গেছে। সামাজিক লোকলজ্জার ভয়ে কয়েকবার সে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এর মধ্যে সৌরভের বংশের লোকজন আমার বাড়িতে এসে বিষয়টি মীমাংসার নামে ধামাচাপার চেষ্টা করে। আমি আমার মেয়ের সামাজিক স্বীকৃতি চাই। অন্যথায় এ ঘটনার বিচার ও ধর্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।