শহীদ ডা. মঈন এর মৃত্যুতে আমি কোন শোকগাঁথা লিখবো না

প্রকাশিতঃ ১১:৪৭ অপরাহ্ণ, বুধ, ১৫ এপ্রিল ২০

ইসমাঈল আহসান : শাহীদ ডা. মঈন এর মৃত্যুতে আমি কোন শোকগাঁথা লিখবো না। কারণ, হত্যাকান্ডের কোন শোকগাঁথা হয় না। হয় প্রতিবাদ। আমি এই হত্যার প্রতিবাদ জানাচ্ছি। গতকাল ডাক্তারদের সবচে বড় গ্রুপে পোস্ট দিয়ে তথ্য নিয়ে নিশ্চিত হয়েই বলছি, উপজেলা, জেলা, মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, এমনকি করোনা ডেডিকেটেড কোনো হাসপাতালেই পর্যাপ্ত পিপিই দেওয়া হয়নি। যা দেওয়া হয়েছে তাকে খুব বেশী হলে রেইনকোট বলা যায়।

দেশের কোন হাসপাতালে N95 মাস্ক দেওয়া হয়নি। প্যাকেটের গায়ে N95 লিখে যেই মাস্ক দেওয়া হয়েছে তা যে শপিং ব্যাগের কাপড় কেটে বানানো তা এর আগে ছবিসহ পোস্ট দিয়ে জানিয়েছি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং মন্ত্রনালয়ের যারা এগুলো সাপ্লাই দিয়েছেন তারা সবাই প্রতিটা চিকিৎসা কর্মীকে সুইসাইডাল মিশনে পাঠিয়েছেন। তাই প্রতিটা মৃত্যুর দায় আপনাদের।

আমি জানি এসব লেখার কারণে আমি শাস্তি পেতে পারি। দেন শাস্তি। কারণ, ওই একটা কাজই আপনারা ভালো পারেন। আর যারা এই সংকটেও পোস্ট পদবী ধরে রাখার জন্য নিজ সহকর্মীদের মৃত্যু দেখেও চুপ থাকছেন, আপনারা কেউই ভাইরাস প্রুফ না। আপনাদের জন্য সমবেদনা।

[এতটুকু এক ডা. ভাইয়ের ওয়াল থেকে কপি।]

০২. সময় মতো চিকিৎসা না হলে তা এক প্রকার বিনা চিকিৎসাই। সেই দু:খগাথার স্ক্রীণশট দিয়ে দিলাম। সাথে আমাদের বীরদের বীরত্বগাঁথাও দিয়ে দিলাম। কী অমৃত বাণী তাঁরা জাতির উদ্দেশ্যে দিয়েছিলেন, আমরা কিছুই ভুলি নাই। সে কী বাণী, সেটা তো ইতিমধ্যে ইতিহাসের খাতায় স্বর্ণাক্ষরে লিখিত হয়ে গেছে! এ জাতি কোনদিন কিছু ভুলেও না, তাঁরা সময়মতো চুৎমারানী গাইল দিতে ঠিকই জানে।

০৩. আমাদের মহামান্য নির্বাচন কমিশন এখন কোথায়? জনগণকে হাত ধুয়ে হলেও নির্বাচন কত্তেই অইবো। এই দিন দিন না, আরো দিন আছে…করোনা কালের পরে আপনাদের সাথে জনগণের দেখা হবে, ইনশাআল্লাহ।

‘’ডাক্তার মঈন উদ্দিন স্যার আমাদের অগ্রগামী যোদ্ধা যিনি তার জীবন দিয়ে বাংলার ডাক্তারদের শির উঁচু করে গেলেন। আমরাও চাই স্যারের স্মৃতি আমাদের নিকট উঁচু হয়ে থাকুক আজীবন। আমি এজন্য কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নাম পরিবর্তন করে শহীদ ডাক্তার মঈন উদ্দিন এর নামে নাম করার প্রস্তাব উত্থাপন করছি। আপনাদের মূল্যবান মন্তব্য প্রয়োজন।’’

স্ট্যাটাসটি দিয়েছেন আমার সহোদর বড়ভাই এবং ইউরোলজী বিশেষজ্ঞ Md Kamrul Islam Uzzal। তিনি নিজেও সেবা দিতে গিয়ে এখন করোনা ঝুঁকিতে দুশ্চিন্তায় দিনাতিপাত করছেন।

আপনারা আর কিছু না পারেন, অন্তত: শেয়ার দিয়ে শহীদের সাথে থাকুন।

#অবরুদ্ধসময়ের২৬তমদিন_৩/১১০

লেখক : জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও সাংবাদিক নেতা। ফোন : ০১৯১১-৪০২৪১৬

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ