শেকৃবিতে হ্যাণ্ড স্যানিটাইজার তৈরী ও বিতরণ

প্রকাশিতঃ ১২:০০ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ১৭ মার্চ ২০

শেকৃবি প্রতিনিধি: বিশ্বজুড়ে মহামারী রূপ নিতে যাওয়া করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধমূলক কর্মসূচীর অংশ হিসেবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ শুরু করেছে শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি রসায়ন বিভাগ।

বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মো. তাজুল ইসলাম চৌধুরি তুহিনের নেতৃত্বে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারিদের মধ্যে বিতরণ করেছেন। সোমবার দুপুরে উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ আনুষ্ঠানিকভাবে বিতরণ কার্যকম উদ্বোধন করেন।

ড. মো. তাজুল ইসলাম চৌধুরি তুহিন বলেন, প্রাথমিকভাবে এক হাজার বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির পরিকল্পনা নিয়ে গত দুই দিনে প্রায় পাঁচশত বোতল তৈরি করেছি।

বিনা মূল্যে বিতরণের জন্য জনগনের মধ্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির দরকার হলে আমরা তা করতে রাজি আছি। আমাদের আর্থিক সংকট রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। পর্যাপ্ত সহযোগিতা পেলে জনগনের মধ্যে বিতরণ করবো।

কিভাবে তৈরি করা হয়েছে জানতে চাইলে কৃষি রসায়ন বিভাগের প্রভাষক মার্জিয়া হাবিব ও মাহবুবা সিদ্দীকা বলেন, একশত থেকে একশত বিশ মিলি লিটার গ্লিসারল, একশত থেকে একশত বিশ মিলি লিটার অ্যালোভেরা জেল এবং বাকি অংশ সত্তর পার্সেন্ট ইথানল দিয়ে এক লিটার হ্যান্ড স্যানিটাইজার প্রস্তুত করা হয়।

যদি স্টিকিনেস বা আঠালোভাব স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হয় তাহলে ৫০ মিলি লিটার ডিসটিলড ওয়াটার যোগ করলে ভাল ফল পাওয়া যায়। তাঁরা আরো জানান, বাজারে অ্যালোভেরা জেল না পাওয়া গেলে অ্যালোভেরা পাতা থেকে জেল সংগ্রহ করে ব্যবহার করা যাবে।

হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির এ সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সকল শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ। শেকৃবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ বলেন, ‘কৃষি রসায়ন বিভাগের এ উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাই। এ কাজে আমার সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। ’ তিনি আশ্বস্ত করে বলেন, ‘করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের এ সময়ে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তায় অগ্রাধিকারভিত্তিতে যেকোন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ