সত্যিই কি রক মারা গেছেন?

প্রকাশিতঃ ৮:০৭ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ১৪ নভেম্বর ১৯

বিনোদন ডেস্ক: বুধবার আচমকা খবর আসে, সবচেয়ে বেশী পারিশ্রমিক নেয়া হলিউড অভিনেতাদের অন্যতম ডুয়াইন জনসন (দ্য রক) মারা গেছেন! মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৪৭ বছর!-এমন খবরে চোখ ছানাবড়া সবার! কিন্তু খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, খবরটি একেবারেই ভিত্তিহীন, বানোয়াট। রকের মৃত্যুর গুজব নিয়ে এমনটাই জানিয়েছে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম মেট্রো।

হলিউডে জনপ্রিয় অভিনেতাদের মৃত্যু নিয়ে গুজব ছড়ানোর রেওয়াজন নতুন নয়, এর আগেও বহু গুণী অভিনেতা এমন গুজবের শিকার হয়েছেন। এবার এর শিকার হলেন ‘ফাস্ট এন্ড ফিউরিয়াস’ খ্যাত এই অভিনেতা।

রকের মৃত্যুর গুজবটি পাঠকের কাছে বিশ্বাসযোগ্য করে তুলতে ‘বিবিসি’র বরাত দেয়া হয়। সেখানে বলা হয়, ভয়ঙ্কর একটি স্টান্ট নিতে গিয়ে ব্যর্থ হন ডুয়াইন জনসন। আর তখনই মারা যান তিনি।

এমন সংবাদ মুহূর্তেই সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। হাজার হাজার ভক্ত অনুরাগীরাও গুজবের ফাঁদে পা রাখেন। সংবাদটি শেয়ার করে সোশাল মিডিয়াতে অনেকেই প্রশ্ন করে জানতে চান, সত্যিই কি রক মারা গেছেন কিনা?

এমন গুজবে সংবাদে সাড়া দেন রক নিজেই। ইনস্টাগ্রামে নিজের একটি ছবি দেন তিনি। যেখানে দেখা যায়, জিমনিশিয়ামে শরীর কসরতে ব্যস্ত তিনি। লিখেন, কোনো গুজবে কান না দিতে। বরং নতুন প্রজেক্টে নিজের ব্যস্ততার কথা জানান রক।

এবারই প্রথম নয়, এরআগেও দুইবার রকের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে ছিলো ইন্টারনেটে। ২০১১ সালে ফেসবুকে তার মৃত্যুর খবর ভাইরাল হয়। এরপর ২০১৪ সালে ‘ফাস্ট এন্ড ফিউরিয়াস ৭’-এর শুটিং চলাকালীন আরেকবার মৃত্যুর গুজব ছড়ায়।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ