সন্তানসহ আত্মহত্যার হুমকি দিলেন বুবলী!

প্রকাশিতঃ ৭:৪৮ অপরাহ্ণ, সোম, ২৫ নভেম্বর ১৯

সময় জার্নাল ডেস্ক :

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আত্মহত্যার হুমকি সম্বলিত স্ট্যাটাস দিয়ে তা মুছে (ডিলিট) দিয়েছেন নরসিংদীর সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য তামান্না নুসরাত বুবলী।

পরীক্ষা কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত হয়ে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কারের ঘটনা উল্লেখ করে সেই ফেসবুক ওয়ালে দেয়া স্ট্যাটাসে তার বিরুদ্ধে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেন বুবলী। কিছু অপশক্তি তার পেছনে লেগেছে বলে স্ট্যাটাসে উল্লেখ করেন। পোস্টের শেষ দিকে দুই সন্তানকে নিয়ে আত্মহত্যা করার কথা উল্লেখ করেন তিনি।  সোমবার (২৫ নভেম্বর) দুপুরে নিজের ফেসবুক আইডি থেকে এ স্ট্যাটাস দেয়া হয়। অবশ্য এর কিছুক্ষণ পরই স্ট্যাটাসটি মুছে ফেলা হয়।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে এমপি বুবলী লেখেন,

‘প্রিয় সাংবাদিক ভাইগণ। আমার জানা মতে আমি ব্যক্তিগতভাবে কারও সঙ্গেই কোনো দিন খারাপ আচরণ বা সামাজিকতার যে আন্তরিকতা সেটা কমতি রাখিনি। যখন নরসিংদীতে ছিলাম মেয়র লোকমান হোসেনের স্ত্রী হিসেবে, আপনারা ওনার মৃত্যুর পর আমার অকালে বিধবা হওয়া এবং লড়াই, সংগ্রামী জীবন ও ছেলে-মেয়েকে নিয়ে একা লড়াই করা দেখে সান্ত্বনা দিয়েছেন। সবাই আফসোস করতো। কিন্তু কেউ ছিল না আমার পাশে। যুদ্ধ জয় কি জিনিস জানতাম না। তবে ছুটতে হবে উপায় নেই। বাজার করা থেকে শুরু করে ছেলে-মেয়ে নিয়ে কতটা লড়েছি, এখনো তারা ছোট সেসব নাইবা বললাম, কেন যেন এখন সব চাইলেই লিখতে পারি না। কারণ একটা সংকোচের জায়গায় অবস্থান করছি।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘আমি সংসদ সদস্য হওয়ার পর আলহামদুলিল্লাহ স্যালারি দিয়ে ছেলে-মেয়েকে ভালো স্কুলে পড়াই, যাবতীয় খরচ বহন করি। সামান্য সঞ্চয় করছি এখান থেকে। যাতে করে পাঁচ বছর পর এটা আমাদের কাজে লাগে। আপনাদের অনেক লেখা আমার চোখে পড়ে। যারা আমার জন্য আফসোস করতেন, আজ তারা টেনেহিঁচড়ে সংসদ থেকে নামাতে মরিয়া হয়ে লিখছেন। ব্যক্তিগত জীবনে চাওয়া-পাওয়ার হিসেব রাখিনি। নরসিংদীবাসীকে ভালোবেসেছি। কিছু অপশক্তি পেছনে লেগেছে, কত কিছু ঘটনা দেশে ঘটে, এত লেখালেখি কেউ করে না। আপনারা এটা নিয়ে এমনভাবে লিখছেন যেন আমার জন্য ৫০ জীবন শেষ হয়ে গেছে। লুটপাট হয়েছে, সর্বনাশ হয়েছে অনেকের।’

বুবলী আরও লিখেছেন, ‘আমার যদি কিছু হয়…। দুই বাচ্চা নিয়ে যদি সুইসাইড করি খুশি হবেন তো আপনারা? ঠিক আছে আপনাদের খুশিই আমার খুশি। ভালো থাকুক আমার সাংবাদিক ভাইরা, আল্লাহ ভালো রাখুক আপনাদের। আমার এ জীবনে পাওয়ার চাইতে মনের দুঃখে মরেছি অনেকবার, বারবার মরার চাইতে একবারে মরে গেলেই ভালো মনে করি।আমার সোনামণিদের নিয়ে ভালো আছি, ভালো থাকব ইনশাআল্লাহ। তাদের ছায়া আমি, দোয়া করবেন সবাই।’

Image may contain: text

এর আগে বিএ পরীক্ষায় জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে দলের সুনাম ক্ষুণ্ণ করায় নরসিংদীর সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি তামান্না নুসরাত বুবলীকে দল থেকে বহিষ্কার করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। পাশাপাশি জেলা আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক পদ থেকেও তাকে অপসারণ করা হয়।দল থেকে বহিষ্কারের আগে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাউবি) অধীনে অনুষ্ঠিত বিএ পরীক্ষায় জালিয়াতির আশ্রয় নেয়ার অভিযোগে তামান্না নুসরাত বুবলীর সব পরীক্ষা ও রেজিস্ট্রেশন বাতিল এবং তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়। এছাড়া ঘটনা তদন্তে একটি কমিটি গঠন করেছে বাউবি প্রশাসন।

এমপি বুবলী ২০১১ সালে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত নরসিংদী পৌরসভার তৎকালীন মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেনের স্ত্রী। একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে নির্বাচন কমিশনে জমা দেয়া হলফনামা অনুযায়ী, বুবলী এইচএসসি পাস। তবে নিজের শিক্ষাগত যোগ্যতা বাড়িয়ে নিতে বাউবির বিএ কোর্সে ভর্তি হন তিনি।

বুবলী ঢাকায় থাকলেও তার হয়ে নরসিংদীতে অন্যদের দিয়ে বিএ পরীক্ষা দেয়ার বিষয়টি উঠে আসে গণমাধ্যমের খবরে। এ ঘটনায় বুবলীকে সব পরীক্ষা ও রেজিস্ট্রেশন বাতিল করে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়। এ ঘটনায় বুবলীকে সব পরীক্ষা ও রেজিস্ট্রেশন বাতিল করে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় (বাউবি) কর্তৃপক্ষ।

এরই মধ্যে বুবলীর প্রসঙ্গে ফেসবুক লাইভে এসেছেন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। বুবলীর প্রতি প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, আপনার এমপি থাকাটা কি এতই প্রয়োজন?। আপনার নৈতিক স্খলনের দায় কেন পুরো দল আওয়ামী লীগ বহন করবে?।

তিনি বলেন, সংবিধানের ধারা ৭০ অনুযায়ী কোনো সংসদ সদস্যের নৈতিক স্খলন ঘটলে তার পদত্যাগ করা উচিত। একটা মানুষের এমপি থাকাটা কি খুবই জরুরি? মেয়র লোকমানের জনপ্রিয়তার কথা চিন্তা করে আপনি এমপি পদ থেকে পদত্যাগ করে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করুন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ