সাতক্ষীরায় টিসিবির পণ্য কম দেয়ায় ডিলার আটক

প্রকাশিতঃ ৭:৫৬ অপরাহ্ণ, বুধ, ৪ নভেম্বর ২০

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : জেলায় টিসিবির পণ্য সাধারণ মানুষের মাঝে কম দিয়ে উচ্চ মূল্যে বাজারে বিক্রির অভিযোগে ডিলার আয়ুব এন্টারপ্রাইজের স্বত্তাধিকারী সিরাজুল ইসলামকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (৪ নভেম্বর) সকালে শহরের আব্দুর রাজ্জাক পার্কে পণ্য দেয়ার সময় পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে। অভিযানে নেতৃত্ব দেন সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মির্জা সালাহউদ্দিন।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, সাতক্ষীরা শহরতলীর কদমতলা এলাকার আয়ুব এন্টারপ্রাইজের স্বত্তাধিকারী টিসিবি ডিলার সিরাজুল ইসলাম শহরের শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কে সরকার নির্ধারিত মূল্যে পণ্যসামগ্রী বিক্রি করে থাকেন। কিন্তু তার বিরুদ্ধে টিসিবি পণ্য নিয়ে নয় ছয়ের অভিযোগ বহুদিনের। রাজ্জাক পার্কে ভোর রাত থেকে সকাল ৯ থেকে ১০ টা পর্যন্ত গরীব থেকে মধ্যবিত্ত মানুষ তীর্থের কাকের মত দাঁড়িয়ে থাকে পণ্য ক্রয়ের জন্য। অথচ ঘন্টার পর ঘন্টা দাড়িয়ে রোদে পুড়ে অপেক্ষা করে অনেককে ফিরে যেতে হয় খালি হাতে। অল্প কিছু লোককে মালামাল দিয়েই শেষ হয়ে গেছে বলে জানিয়ে দেন ডিলার। সাধারণ মানুষের মাঝে যে পরিমাণ টিসিবি পণ্য বিক্রি করার কথা তিনি তা না দিয়ে অধিক মুনাফা লাভের আশায় প্রায় অর্ধেকের বেশী মালামাল উচ্চ মুল্যে বাজারে বিক্রি করে আসছিলেন বলে জানিয়েছেন ভুক্তভুগীরা।

জনসাধারনের এই ভোগান্তির অবসান ঘটাতে সকালে পুলিশ শহরের আব্দুর রাজ্জাক পার্কে অভিযান চালিয়ে টিসিবি ডিলার আয়ুব এন্টারপ্রাইজের স্বত্তাধিকারী সিরাজুল ইসলামকে হাতেনাতে আটক করে। এ সময় দেখা যায় বরাদ্দ পত্র অনুযায়ী বুধবার তালিকায় চিনির পরিমাণ ৩০০ কেজি থাকার কথায় থাকলেও রয়েছে মাত্র ১৯৪ কেজি। যা পরিমাণে ১০৬ কেজি কম। একইভাবে মসুরের ডাল ৭০০ কেজি থাকার কথা থাকলেও রয়েছে মাত্র ২০২ কেজি। যা পরিমাণে ৪৯৮ কেজি কম। পেঁয়াজ ৭০০ কেজি থাকার কথা থাকলেও রয়েছে মাত্র ৪১৩ কেজি, যা পরিমাণে কম রয়েছে ২৮৭ কেজি। সোয়াবিন তেল ৮০০ লিটার থাকার কথা থাকলেও রয়েছে ৭৪০ লিটার। যা পরিমাণে কম রয়েছে ৬০ লিটার।

তবে এ বিষয়ে অভিযুক্ত টিসিবি ডিলার সিরাজুল ইসলাম জানান, ‘কদমতলা থেকে মালামাল নিয়ে আসার পথে সিটি কলেজের মোড়ে কিছু লোকজনের মালামাল দিয়ে এসেছি। যার ফলে নির্ধারিত মালামাল থেকে কিছু কম দেখাচ্ছে।’

সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মির্জা সালাহউদ্দিন জানান, অনেক দিন থেকেই খবর পাচ্ছিলেন জনগনের কাছে বিক্রির নির্ধারিত পরিমাণ পেয়াজ, চিনি, তেলসহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে আসার কথা থাকলেও কম পরিমান মালামাল আনা হচ্ছে। ফলে অর্ধেকের বেশী জনগনকে খালি হাতে ফেরত দিচ্ছিলের টিসিবি ডিলার সিরাজুল ইসলাম। সেই খবরের ভিত্তিতে বুধবার সকালে পুলিশ স্পটে অবস্থান নেয়। ডিলার আসার পর প্রথমে কি পরিমাণ মালামাল থাকার কথা সেই তালিকা নেয়া হয়। এসময় কি পরিমাণ মালামাল আছে তা চেক করে ডিলারের বিশাল কারসাজি ধরে ফেলেন তিনি। এটি সরাসরি জনগণ ও রাষ্ট্রের সাথে প্রতারণা। রাষ্ট্র ও জনগণের সাথে এই প্রতারণার জন্য টিসিবি ডিলার সিরাজুল ইসলামকে হাতে নাতে আটক করা হয়। ডিলারের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে বলে তিনি জানান।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।