সাতক্ষীরায় ত্রাণের দাবিতে বিক্ষোভ

প্রকাশিতঃ ৬:২৬ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ১৬ এপ্রিল ২০

মুহা: জিললুর রহমান, সাতক্ষীরা : জেলায় সরকারি সহায়তা (ত্রাণ) না পাওয়ায় বিক্ষোভ করেছে গৃহবন্দি শতাধিক অসহায় দরিদ্র পরিবার। বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের সামনে সাতক্ষীরা-কালিগঞ্জ সড়কের কাছে পৌরসভার বাঁকাল ইসলামপুর এলাকার শত শত নারী-পুরুষ এই বিক্ষোভ করে। পরে পুলিশের দেওয়া ত্রাণের আশ্বাসে তারা ঘরে ফিরে যান।

আন্দোলরত এলাকাবাসীরা জানান, সরকার এই দুর্যোগের সময়ে পর্যাপ্ত ত্রাণ সহায়তার ঘোষণা দিলেও এত দিনে আমরা কোনো সরকারি সহায়তা পাইনি। আমরা দিন আনা দিন খাওয়া মানুষ ঘরের বাইরে যেতে না পারায় ভ্যান-রিক্সা চালাতে পারছিনা। কাজ করতে যেতে পারিনা। তবে না খেয়ে আর কত দিন ঘরে বসে থাকবো। স্ত্রী- সন্তান নিয়ে না খেয়ে দিনাতিপাত করছি। যে কারণে এই করোনা মহামারি উপেক্ষা করে রাস্তায় নামতে আমরা বাধ্য হয়েছি।

আন্দোলনকারীদের পক্ষে বাঁকাল এলাকার আবুল হোসেন জানান, বাঁকাল এলাকার ইসলামপুর চর এলাকায় ভূমিহীন জনপদে প্রায় ৫ হাজার মানুষ বসবাস করেন। এপর্যন্ত সেখানে কেউ ত্রাণ পাননি। বারবার বলার পরেও স্থানীয় কাউন্সিলর কোন কর্ণপাত করেননি। তাই বাধ্য হয়ে তাদেরকে বিক্ষোভে নামতে হয়েছে।

একই এলাকার আশরাফুল ইসলাম বলেন, আমরা কোন মেম্বর-চেয়ারম্যানের কাছ থেকে ত্রাণ গ্রহণ করতে চাই না। সেনাবাহিনীর মাধ্যমে আমাদের মধ্যে ত্রাণ পৌছে দেওয়া হোক। তাহলে সকলেই সুষ্ঠুভাবে ত্রাণ পাবে।

তবে ইসলামপুর চরে ২শ’ পরিবারকে দেড় হাজার করে টাকা দেওয়া হয়েছে জানিয়ে পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম জানান, সেখানে দেড় হাজারের মত ভোটার রয়েছে। ২শ’ জনকে চালের কার্ড করে দেওয়া হয়েছে। বরাদ্দ সাপেক্ষে সুষ্ঠুভাবে বিতরণ করা হচ্ছে এবং আগামীতে হবে বলে জানান তিনি।

সাতক্ষীরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান জানান, অবরোধ ঠিক না। ত্রাণ না পেয়ে বাঁকাল ইসলামপুর এলাকার কিছু মানুষ সড়কে বিক্ষোভের মত করার চেষ্টা করছিল। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে পুলিশের পক্ষ থেকে ত্রাণ ঘরে পৌছে দেওয়ার আশ্বাসে তারা ঘরে ফিরে যান।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ